বিজ্ঞাপন

যেসব প্রবীণ নাগরিক থানায় যেতে পারছেন না, পুলিশ কর্মকর্তারা তাঁদের কথাও শোনেন বাড়িতে গিয়ে। এমনকি গুরুতর ফৌজদারি অপরাধের কথাও শোনেন। অভিযোগ শুনে যেসব ঘটনায় মামলা হতে পারে, সেসব ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন তাঁরা।

এ বিষয়ে নন্দীগ্রাম থানার একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘নন্দীগ্রাম থানার বিভিন্ন এলাকায় পর্যায়ক্রমে শুরু করা হচ্ছে ভ্রাম্যমাণ থানার কাজ। নন্দীগ্রাম থানার পুলিশ এখন নিয়মিত বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে মানুষের অভাব–অভিযোগের কথা শুনছে। তাদের আবেদন–নিবেদন শুনে ব্যবস্থা নিচ্ছে।’

নন্দীগ্রাম পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার একটি ঐতিহাসিক থানা এলাকা। রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনে এবার এই নন্দীগ্রাম আসনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরাজিত করে জয়ী হন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী।

পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য প্রশাসনকে মানুষের দোরগোড়ায় নিয়ে যাওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা এবারের বিধানসভা নির্বাচনের মধ্যে হাতে নিয়েছিলেন ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্প। মানুষের অভাব–অভিযোগ শোনা ও সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রাজ্য সরকার শুরু করেছিল ওই প্রকল্প। এতে ব্যাপক সাড়া পায় রাজ্য সরকার।

নির্বাচনে দলের জয়ের পর মমতা ফের ঘোষণা দেন রেশনের জন্য আর মানুষকে যেতে হবে না দোকানে। দিতে হবে না লাইন। রেশনই চলে আসবে মানুষের দুয়ারে। সেই দুয়ারে রেশন প্রকল্পও জনপ্রিয় হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার থেকে ‘দুয়ারে পুলিশ’ নামের প্রকল্প চালু হয়েছে নন্দীগ্রাম থেকে।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন