default-image

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সব উচ্চবিদ্যালয় ১২ ফেব্রুয়ারি খুলছে। রাজ্যে করোনা সংক্রমণের মাত্রা কমে আসায় পশ্চিমবঙ্গ সরকার এই ঘোষণা দিয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন।

উচ্চবিদ্যালয় খোলার পর নবম, দশম, একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস হবে। অন্যান্য শ্রেণির ক্লাস কবে শুরু হবে, তা শিগগির জানাবে রাজ্য সরকার।

পশ্চিমবঙ্গে করোনার সংক্রমণ শুরু হলে গত বছরের মার্চে বন্ধ হয়ে যায় রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি স্কুলসহ উচ্চবিদ্যালয়। একটানা ১১ মাস বন্ধের পর এখন উচ্চবিদ্যালয় খুলছে। উচ্চবিদ্যালয়গুলো খোলার আগে তা জীবাণুমুক্ত করা হবে।

বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, উচ্চবিদ্যালয় খোলার পর করোনার স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংশ্লিষ্ট শ্রেণির ক্লাস নেওয়া হবে। তাত্ত্বিকের পাশাপাশি ব্যবহারিক ক্লাসও নেওয়া হবে। ছাত্র-শিক্ষকসহ সবাইকে মাস্ক পরে আসতে হবে। এ ছাড়া সবার হাত স্যানিটাইজ করতে হবে।

রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উচ্চবিদ্যালয় খুললেও কোনো অনুষ্ঠান করা চলবে না।

রাজ্যের কলেজ (ডিগ্রি) ও বিশ্ববিদ্যালয় কেন খুলে দেওয়া হবে না, এমন প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, এ নিয়ে আজ বুধবার তিনি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন। কলকাতার নিউ টাউনের উচ্চশিক্ষা সংসদ ভবনে এই বৈঠক হবে।

পশ্চিমবঙ্গে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার এখন নিম্নমুখী। গতকাল মঙ্গলবার রাতে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিনে বলা হয়, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২০৩ জন। মারা গেছে নয়জন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন