পশ্চিমবঙ্গে করোনায় সংক্রমিতদের মধ্যে ২.২ শতাংশের মৃত্যু

বিজ্ঞাপন
default-image

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে ২ দশমিক ২ শতাংশ রোগী মারা গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজ্য সচিবালয় নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান।

মমতা বলেন, রাজ্যে করোনায় মারা যাওয়া রোগীদের (২ দশমিক ২ শতাংশ) মধ্যে ৮৭ শতাংশের করোনার সঙ্গে অন্য রোগও ছিল। এই রোগীদের মধ্যে ৭০ শতাংশের উপসর্গ ধরা পড়লেও দ্রুত হাসপাতালে আসেনি। উপসর্গ চরম আকার ধারণ করলে তারা হাসপাতালে আসতে বাধ্য হয়।

সাংবাদিকদের মমতা জানান, রাজ্যের ৮৩টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে করোনার চিকিৎসা চলছে। বিভিন্ন হাসপাতালে ১ হাজার ১৪৪ জন আশঙ্কাজনক করোনা রোগী রয়েছেন।

মমতা দাবি করেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাজ্য সরকার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নিয়েছে। করোনার রোগীরা যাতে যথাযথ চিকিৎসা পান, এ জন্য রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে শয্যাসংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। এ ছাড়া রাজ্যের হাসপাতালে আরও ৫০০ জন চিকিৎসক ও ১৮ জন টেকনিশিয়ান নিয়োগ করা হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্য সচিব রাজীব সিনহা। তিনি জানান, রাজ্যে করোনা রোগীর সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭০ দশমিক ৩৪ শতাংশ। সংক্রমণের হার কমে দাঁড়িয়েছে ১১ দশমিক ৭১ শতাংশ।

রাজীব সিনহা বলেন, ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গে সর্বশেষ নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২ হাজার ৯৫৪ জন। মারা গেছেন ৫৬ জন।

এ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমিত মোট সংখ্যা ৮৬ হাজার ৭৫৪ জন। মোট মৃত্যু ১ হাজার ৯০২ জন। মোট সুস্থ ৬১ হাজার ২৩ জন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন