বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্য দপ্তর বলছে, ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে ২০২১ সালের মার্চ পর্যন্ত রাজ্যের ১৭ লাখ ৯৮ হাজার ৬৪৯ জন বাসিন্দার রক্তচাপ পরীক্ষা করা হয়েছে। ডায়াবেটিস পরীক্ষা হয়েছে ১৩ লাখ ৯৪ হাজার ১৫ জনের। এর মধ্যে উচ্চ রক্তচাপ ধরা পড়েছে ৩ লাখ ৪ হাজার ১৫৮ জনের। অপর দিকে ডায়াবেটিস ধরা পড়েছে ১ লাখ ৯৩ হাজার ১১৩ জনের।

কলকাতা ও জলপাইগুড়ি ছাড়াও রাজ্যের নদীয়া, মুর্শিদাবাদ, পূর্ব বর্ধমান ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীর আধিক্য রয়েছে। এই দুই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা কম পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, কালিম্পং, পশ্চিম বর্ধমান, দার্জিলিং, বীরভূম ও উত্তর ২৪ পরগনায়। আলিপুরদুয়ার, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, হাওড়া ও পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় শুধু উচ্চ রক্তচাপের রোগীর সংখ্যা বেশি।
২০১৮ সালের ‘গ্লোবাল বার্ডেন অব ডিজিস স্টাডি-২০১৮’-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতে সবচেয়ে বেশি উচ্চ রক্তচাপের রোগী রয়েছে তামিলনাড়ু ও কেরালা রাজ্যে। এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে কম রাজস্থান ও হরিয়ানায়।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন