default-image

পশ্চিমবঙ্গের হুগলির ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকি গত বৃহস্পতিবার রাজ্যে ‘ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট’ নামে নতুন একটি ধর্মনিরপেক্ষ দল গড়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সবুজ-নীল ও সাদা রঙের দলীয় পতাকাও উদ্বোধন করা হয়েছে একই দিন।

দলের চেয়ারম্যান হয়েছেন আব্বাসের ভাই নৌশাদ সিদ্দিকি। আর সভাপতি সিমল সোরেন।

এদিকে দল গঠনের ঘোষণা দিয়ে আব্বাস সিদ্দিকি বলেছেন, ধর্মনিরপেক্ষতার পাশাপাশি সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের খাদ্য, বাসস্থান, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বেকার সমস্যা সমাধানের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করবে এই দল। আদিবাসী ও দলিত সংখ্যালঘু সমাজের উন্নয়ন হবে এর অন্যতম লক্ষ্য।

বিজ্ঞাপন

নতুন দল ঘোষণার পর গতকাল রোববার দলের উদ্যোগে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগর বিধানসভা কেন্দ্রের হিজলিয়া গ্রামে বিরাট এক জনসভা হয়। জনসভা থেকে আব্বাস সিদ্দিকি বলেন, ভারতবর্ষকে তিলে তিলে গড়েছেন জনজাতির মানুষেরা। তাঁরাই এখানকার আদি বাসিন্দা। জমি চাষ থেকে শুরু করে শিল্প, কলকারখানা গড়তে ভারতবর্ষে জনজাতির মানুষের ভূমিকা ছিল সর্বাগ্রে। তিনি বলেন, আজ সারা দেশে সেই জনজাতি বঞ্চিত। তাই জনজাতি, দলিত ও সংখ্যালঘু মুসলিমদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সমাজকে গড়তে হবে। আর নতুন করে এই সমাজ গড়ার আন্দোলনে শরিক হবে নবগঠিত দল ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট।

আব্বাস সিদ্দিকি আরও বলেন, ‘এটি কোনো রাজনৈতিক সভা নয়। আমরা বঞ্চিতদের কথা বলতে এখানে এসেছি। আমরা বঞ্চিত জনজাতি, দলিত ও সংখ্যালঘু মুসলিমদের উন্নয়ন চাই।’

জনসভায় যোগদানকারী অনেকে বঞ্চনার শিকার হওয়ার অভিযোগ তুলে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেস ও বিরোধী বিজেপির বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। এ সময় আব্বাস সিদ্দিকি বলেন, আজ তৃণমূল ও বিজেপি উভয়েই ধর্ম এবং রাজনীতি এক করে ফেলেছে। সেক্যুলার ফ্রন্ট তা থেকে দূরে থাকবে।

গতকাল রোববার নতুন দল ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্টকে বাম-কংগ্রেস জোটে শামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সিপিএমের পলিট ব্যুরো সদস্য ও সাবেক সাংসদ মোহাম্মদ সেলিম। ওই দিন দলটির পক্ষ থেকে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, তাঁরা তৃণমূল ও বিজেপিবিরোধী ধর্মনিরপেক্ষ জোট গড়তে আব্বাস সিদ্দিকির দলকে আহ্বান জানিয়েছেন। তাতে অনেকে সেই জোটে শরিক হওয়ার জন্য সাড়া দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা এ লক্ষ্যে ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্টের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছি। আমাদের স্পস্ট অবস্থান, আমরা ধর্মনিরপেক্ষ শক্তির জোট চাই। এ জোট হবে সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের নিয়ে।’

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন