default-image

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচন হবে ৮ দফায়। প্রথম দফায় ভোট গ্রহণ হবে ২৭ মার্চ। শেষ হবে ২৯ এপ্রিল। আর ভোট গণনা হবে ২ মে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা আজ শুক্রবার বিকেলে দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তফসিল ঘোষণা করেন।

প্রথম দফার নির্বাচন হবে ৩০টি আসনে। দ্বিতীয় দফার নির্বাচন হবে ১ এপ্রিল ৩০টি আসনে। তৃতীয় দফার নির্বাচনও হবে ৩১টি আসনে ৬ এপ্রিল। এরপর নির্বাচন হবে যথাক্রমে ৯ এপ্রিল ৪৪টি আসনে, ১৭ এপ্রিল ৪৫টি আসনে, ২২ এপ্রিল ৪৩টি আসনে, ২৬ এপ্রিল ৩৬টি আসনে এবং ২৯ এপ্রিল ৩৫টি আসনে। মোট ৮ দফায় ২৯৪টি আসনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

সব ভোটকেন্দ্র হবে এবার পাকা বাড়ির নিচতলায়। দোতলা বা তিনতলায় কোনো ভোটকেন্দ্র হবে না। ভোটকর্মীদের করোনার টিকা নিতে হবে। আর এবার ভোট গ্রহণের সময় এক ঘণ্টা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া এবার তামিলনাড়ু, কেরালা, আসাম ও পদুচেরি বিধানসভারও নির্বাচন হবে। পশ্চিমবঙ্গে ২৯৪টি আসনসহ ৫টি রাজ্যের মোট ৮২৪টি আসনে এবার নির্বাচন হচ্ছে।

এবার পশ্চিমবঙ্গে ভোটকেন্দ্র বাড়ানো হয়েছে ৩১.৬৫ শতাংশ। ২০১৬ সালে এই রাজ্যে ভোটকেন্দ্র ছিল ৭৭ হাজার ৪১৩টি। করোনার কারণে এবার তা বাড়িয়ে করা হয়েছে ১ লাখ ১ হাজার ৯১৬টি। সব ভোটকেন্দ্র হবে এবার পাকা বাড়ির নিচতলায়। দোতলা বা তিনতলায় কোনো ভোটকেন্দ্র হবে না।

বিজ্ঞাপন

করোনার আবহে ভোট হওয়ার কারণে এবার ভোটারদের স্বাস্থ্যের প্রতি কড়া নজর দেওয়া হবে। ভোটকেন্দ্র ভোটারদের করোনাবিধি মেনে ভোট দিতে হবে।
ভোটকর্মীদের করোনার টিকা নিতে হবে।

এবার মনোনয়নপত্র দাখিল করা যাবে অনলাইনেও। আর এবার ভোট গ্রহণের সময় এক ঘণ্টা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

মুখ্য নির্বাচন কমিশনার আরও বলেছেন, ভোটে শান্তিরক্ষার জন্য এবার বাড়ানো হচ্ছে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সংখ্যা। ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় কেন্দ্রীয় বাহিনী টহল শুরুও করেছে। এবার রাজ্যে দুজন বিশেষ পুলিশ অবজারভার নিয়োগ করা হয়েছে। তাঁরা হলেন বিবেক দুবে ও মৃণাল দাস। এ ছাড়া এই নির্বাচনের জন্য রাজ্যে বিশেষ পর্যবেক্ষক হিসেবে নির্বাচন কমিশন নিয়োগ করেছে অজয় নায়েককে।

আর নির্বাচনী হিসাব পর্যবেক্ষক হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে বি মুরলী কুমারকে।
মুখ্য নির্বাচন কমিশনার আরও বলেছেন, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় প্রার্থীর সঙ্গে দুজন যেতে পারবেন। প্রচারের জন্য রোড শোতে যোগ দিতে পারবে সর্বাধিক পাঁচটি গাড়ি। ভোটারদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে প্রচার করতে পারবেন একসঙ্গে পাঁচজন। তবে এবার বোর্ডের পরীক্ষাকালে ভোট নেওয়া হবে না।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন