default-image

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভার নির্বাচন হতে পারে এপ্রিল মাসে। গতকাল বুধবার রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপনির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন কলকাতায় এসে পুলিশ ও প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে ইঙ্গিত দেন, আগামী এপ্রিলের মধ্যে এ রাজ্যে নির্বাচন করতে চায় নির্বাচন কমিশন। তাঁর এ মন্তব্যে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন শুরু হয়েছে, ২৯৪টি আসনের এ রাজ্যে বিধানসভার ভোট হতে যাচ্ছে আগামী এপ্রিলেই।

সুদীপ জৈন গতকাল প্রথম বৈঠক করেছেন কলকাতার একটি অভিজাত হোটেলে। সেখানে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিভিন্ন জেলার পুলিশ সুপার এবং পুলিশ কমিশনারেটের কমিশনারেরা উপস্থিত ছিলেন। পরে রাজ্যের নির্বাচন কর্মকর্তাসহ জেলা প্রশাসক ও ঊর্ধ্বতন প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে আরেকটি বৈঠক করেন তিনি। দুটি বৈঠকেই তিনি জানিয়ে দেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে করতে নির্বাচন কমিশন বদ্ধপরিকর। নির্বাচন নিয়ে কোনো সংঘাত বরদাশত করা হবে না। নির্বাচন নিয়ে কোনো গাফিলতিও বরদাশত করবে না নির্বাচন কমিশন। গাফিলতির প্রমাণ পেলে কড়া ব্যবস্থা নেবে কমিশন।

উপনির্বাচন কমিশনার এ কথাও জানিয়ে দিয়েছেন, জামিন অযোগ্য মামলায় যেসব পরোয়ানা পুলিশ এখনো কার্যকর করেনি, সেসব পরোয়ানা আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে কার্যকর করতে হবে। তিনি বলেন, নির্বাচনকে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে এবার কেন্দ্রীয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর রেকর্ডসংখ্যক সদস্য নিয়োগ করা হবে। সেই সঙ্গে করোনাবিধি মেনে নির্বাচন করার জন্য রাজ্যে আরও ২৮ হাজার ভোটকেন্দ্র বাড়ানো হচ্ছে। বর্তমানে রাজ্যে ৭৮ হাজার ভোটকেন্দ্র রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে একই সময়ে পশ্চিমবঙ্গ বাদে ভারতের আরও চার রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনও হবে। এসব রাজ্য হলো আসাম, কেরালা, তামিলনাড়ু ও পুদুচেরি।

পশ্চিমবঙ্গে ২০১৬ সালে সর্বশেষ নির্বাচন হয়েছিল সাত ধাপে। এবারও সাত দফায় নির্বাচন হতে পারে বলে নির্বাচন কমিশন ইঙ্গিত দিয়েছে। ওই নির্বাচনে শাসক দল তৃণমূল পেয়েছিল ২১১ আসন। কংগ্রেস ৪৪টি, বামফ্রন্ট ৩২টি আর বিজেপি পেয়েছিল মাত্র ৩ আসন। তবে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের নিরিখে দেখা যায়, তৃণমূল বিধানসভার ২৯৪টি আসনের মধ্যে এগিয়ে রয়েছে ১৬৪টিতে। বিজেপি ১২১টিতে, আর বামদল ও কংগ্রেস ৮ আসনে।

এবার নির্বাচনের পটপরিবর্তন হয়েছে। কংগ্রেস-বামদলকে টপকে এ রাজ্যে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বিজেপি। তাই বিজেপি এবার দাবি তুলেছে, তারা দুই শতাধিক আসন পেয়ে জিততে চলেছে। পাশাপাশি তৃণমূলও দাবি করেছে, তারাই দুই শতাধিক আসনে জয়ী হয়ে ফের ক্ষমতায় আসবে এবং তৃতীয়বারের মতো মুখ্যমন্ত্রী হবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই।

মন্তব্য করুন