পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির দাবি আরএসএসের

বিজ্ঞাপন
default-image

পশ্চিমবঙ্গের হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ (আরএসএস) এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি) রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি তুলেছে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির কথা বলে তারা এ দাবি তুলেছে।

সম্প্রতি মুর্শিদাবাদ জেলার জিয়াগঞ্জে লেবুবাগানের এক দম্পতি নৃশংসভাবে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। সে ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছে আরএসএস ও ভিএইচপি। একই সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির দাবিও তুলেছে তারা।

জিয়াগঞ্জের ওই হত্যাকাণ্ডের সিবিআই তদন্তের দাবি জানান রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের আন্তর্জাতিক কার্যকরী সভাপতি আলোক কুমারও রাজ্যে শান্তি–শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার দাবি জানান।

দিলীপ ঘোষ বলেন, কার ওপরে ভরসা করবে এ রাজ্যের মানুষ? আইনশৃঙ্খলা বলে এ রাজ্যে কিছু নেই। পুলিশের ওপর মানুষ আস্থা হারিয়েছে।

আলোক কুমার বলেন, পশ্চিমবঙ্গে আইনের শাসন নেই। রাজ্যে বিরোধীশূন্য করতে তাণ্ডব, লুট, সন্ত্রাস, ধর্ষণ ও হত্যালীলা চালানো হচ্ছে। রাজ্যে শান্তি–শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য অবিলম্বে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা জরুরি হয়ে পড়েছে।

মঙ্গলবার বিজয়া দশমীর দিনে মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জে নৃশংসভাবে খুন হন বন্ধু প্রকাশ পাল (৩৩) ও তাঁর স্ত্রী বিউটি পাল (২৮) ও তাঁদের সন্তান আর্য পাল (৬)। বন্ধু প্রকাশ আরএসএস কর্মী বলে দাবি করেছে বিজেপি। এ ঘটনায় রাজ্যের জাতীয় মহিলা কমিশন প্রতিবাদে মামলা করেছে।

সমালোচনার জবাবে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, পারিবারিক বিবাদের জেরে হওয়া খুনকে রং লাগিয়ে এখন রাজ্যে অশান্তি ছড়াতে চাইছে বিজেপি ও আরএসএস। বিজেপির গোষ্ঠী দ্বন্দ্বকে ধামাচাপা দিতে আরএসএস, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ আর বিজেপি রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে এখন এ হত্যাকাণ্ডকে নিয়ে পথে নেমেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন