পৌর নির্বাচন ব্যালটে চান মমতা

বিজ্ঞাপন
default-image

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের পৌর নির্বাচন ব্যালটে করার দাবি জানিয়েছেন। এর কারণ হিসেবে মমতা বলছেন, ইভিএমে ভোট নিলে কারচুপি করার সুযোগ থাকে।

পশ্চিমবঙ্গের পৌর ও নগর উন্নয়ন দপ্তর এই দাবিতে রাজ্যের নির্বাচন দপ্তরে চিঠি দিয়েছে।

ভারতের নির্বাচন কমিশন লোকসভা ও বিধানসভার নির্বাচন নিয়ন্ত্রণ করে। রাজ্যের নির্বাচন কমিশন দপ্তর পৌরসভা ও পঞ্চায়েতের নির্বাচন নিয়ন্ত্রণ করে। রাজ্য নির্বাচন কমিশন এবারের পৌরসভা ও পৌর করপোরেশনের নির্বাচন নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে রয়েছে। তৃণমূল এবার পৌরসভা এবং পৌর করপোরেশনের নির্বাচন ব্যালটে করার দাবি তুলেছে। 


পশ্চিমবঙ্গে ১২৭ পৌরসভা ও পৌর করপোরেশন রয়েছে। এর মধ্যে এবার নির্বাচন হচ্ছে ১১০ পৌরসভা ও পৌর করপোরেশনে। এর মধ্যে কলকাতা পৌর করপোরেশনও রয়েছে। এ বছরের এপ্রিল মাসের মাঝামাঝিতে এই নির্বাচন হওয়ার কথা। নির্বাচন হতে পারে দুই বা তিন দফায়।

তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ব্যালটে নির্বাচন চাইলেও তাতে আপত্তি তোলেনি ভারতীয় জনতা পার্টি বিজেপি ও বাম দল। তাদের কথা নির্বাচন ব্যালটে, না ইভিএমে হবে, তার সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার রয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের।

বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা মুকুল রায় দলের একদল নেতাকে নিয়ে গিয়েছিলেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনে। সেখানে তাঁরা বলেন, নির্বাচন কমিশন ব্যালট কিংবা ইভিএমে নির্বাচন করুক না কেন, তাতে তাঁদের আপত্তি থাকবে না। তাঁদের একটিই দাবি, নির্বাচন হতে হবে অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে।

কলকাতা পৌর করপোরেশনের তৃণমূলদলীয় মেয়র ও পশ্চিমবঙ্গের পৌর ও নগর উন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমও বলেন, ইভিএমে ভোট হোক, এটা তাঁরা চান না। তিনি বলেছেন, রাজ্য নির্বাচন কমিশনই সিদ্ধান্ত নিক, তারা ব্যালটে, নাকি ইভিএমে পৌর ভোট করবে?

সিপিএমও বলেছে, রাজ্য নির্বাচন কমিশন ঠিক করুক ব্যালটে, না ইভিএমে পৌর ভোট হবে। তাদের একটি দাবি, অবাধে ও শান্তিপূর্ণভাবে কলকাতা পৌর করপোরেশনসহ রাজ্যের ১১০টি পৌর নির্বাচন করতে হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন