বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শুনে নিশ্চয়ই পুখারামকে হিংসে হচ্ছে। ভাবছেন, ঘুমিয়ে শান্তিপূর্ণ একটি জীবন কাটান তিনি। তবে পুখারামের দিনের পর দিন ঘুমানোর পেছনের কারণ শখ কিংবা নিছক সময় কাটানো নয়। তিনি স্নায়ুতন্ত্রের একটি বিরল অসুখে আক্রান্ত। মস্তিষ্কে টিএনএফ-আলফা নামে প্রোটিনের তারতম্যের কারণে এই অসুখ হয়। এ কারণে পুখারামকে প্রতি মাসে ২০-২৫ দিন ঘুমিয়ে কাটাতে হয়।

চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায়, পুখারামের এই বিরল অসুখের নাম অ্যাক্সিস হাইপারসোমনিয়া। এই অসুখ ঘুম বাড়িয়ে দেয়। আজ থেকে ২৩ বছর আগে তাঁর এই অসুখ প্রথম শনাক্ত হয়। তখন থেকে আমূল বদলে যায় তাঁর প্রাত্যহিক রুটিন, জীবনযাপনের পদ্ধতি। মানুষ যখন কাজ করে, উপার্জন করে, পুখারাম তখন ঘুমিয়ে থাকেন। বছরের বেশির ভাগ সময় তাঁর কাটে বিছানা-বালিশের সঙ্গে।

পরিবারের সদস্যরা জানান, শুরুর দিকে পুখারাম মাসে পাঁচ-সাত দিন টানা ঘুমাতেন। পরে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে তাঁর এই অসুখের কথা জানা যায়। এখন তাঁর ঘুমের মাত্রা আরও বেড়েছে। এখন মাসে ২০-২৫ দিন ঘুমান তিনি।

পুখারাম পেশায় মুদিদোকানি। কিন্তু টানা ঘুমানোর কারণে তিনি মাসে মাত্র পাঁচ দিন দোকান খুলতে পারেন। এমনকি ওই পাঁচ দিনও তিনি তন্দ্রার মধ্যে থাকেন। তীব্র মাথাব্যথায় ভোগেন। টানা ঘুমানোর কারণে খাওয়াদাওয়া ও গোসল করার মতো প্রাত্যহিক কাজগুলোও তাঁকে পরিবারের সদস্যদের সহায়তায় করতে হয়। পুখারামের স্ত্রী লিচমি দেবী ও মা কানবারি দেবী আশা করছেন, শিগগিরই তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন, আগের মতো স্বাভাবিক জীবনে ফিরবেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন