বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কলকাতা বিমানবন্দরে আসা নয়টি দেশের নাগরিকদের করোনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এ দেশগুলো হলো ব্রিটেন, ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা, চীন, বাংলাদেশ, মরিসাস, নিউজিল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে ও বতসোয়ানো। এসব দেশের নাগরিকেরা করোনা আরটি-পিসিআরের নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে এলেও কলকাতা বিমানবন্দরে আবার তাঁদের করোনার নমুনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। রাজ্য সরকার করোনার নতুন রূপের মোকাবিলা করার জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কলকাতা বিমানবন্দরে এই নমুনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

গতকাল রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অজয় চক্রবর্তী এসব কথা জানিয়েছেন সাংবাদিকদের। তিনি বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ মেনে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গতকালই কলকাতা নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এবং বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে স্বাস্থ্য দপ্তরের এক বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বলা হয়েছে, কোনো বিদেশি যাত্রী করোনার আরটি-পিসিআর রিপোর্ট নেগেটিভ নিয়ে কলকাতা বিমানবন্দরে অবতরণ করলেও তাঁদের নতুন করে বিমানবন্দরেই করতে হবে করোনার নমুনা পরীক্ষা। পরীক্ষায় নেগেটিভ রিপোর্ট এলেই ছেড়ে দেওয়া হবে বিদেশি যাত্রীদের। আর পজিটিভ রিপোর্ট এলে যাত্রীদের পাঠিয়ে দেওয়া হবে কলকাতার বেলেঘাটার আইডি হাসপাতালে।

এদিন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে আরও বলা হয়েছে, বিদেশি যাত্রীদের কলকাতা বিমানবন্দরেই করতে হবে করোনার আরটি-পিসিআর পরীক্ষা। এর খরচ বহন করতে হবে যাত্রীদেরই। তবে যাঁরা বিনা পয়সায় এই পরীক্ষা করতে চাইবেন, তাঁদের পাঠিয়ে দেওয়া হবে কলকাতার উপকণ্ঠে রাজারহাটের নিউটাউনের সিএনসিআইয়ের পরীক্ষাকেন্দ্রে।

গতকালও কলকাতা ছিল করোনার মৃত্যুহীন দিন

সোমবারের পর গতকাল মঙ্গলবারও কলকাতা ছিল মৃত্যুহীন। এ নিয়ে এ মাসে দুই দিন কলকাতায় কারও মৃত্যু হয়নি। সোম ও মঙ্গলবার শূন্য ছিল মৃত্যুসংখ্যা। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১০৫ জন আর এ রাজ্যে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৬০১ জন। আর মৃতের সংখ্যা কমে হয়েছে ৭। সোমবার মৃতের সংখ্যা ছিল ১৩। আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫০৫।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন