বিজেপির রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার তাপস পাল: মমতা

বিজ্ঞাপন
default-image

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘বিজেপির রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার তাপস পাল। প্রতিহিংসামূলক আচরণ করেছে কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকার।’

সদ্য প্রয়াত অভিনেতা তাপস পালকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এসে আজ বুধবার এসব কথা বলেন মমতা। তাপস পালের শেষকৃত্য সম্পন্ন হলো আজ বিকেলে দক্ষিণ কলকাতার কেওড়াতলা মহাশ্মশানে। বেলা ১১টায় তাপস পালের মরদেহ শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হয় কলকাতার রবীন্দ্র সদনে। সেখানে কলকাতার ছবিপাড়ার তারকাসহ কলকাতার সাংস্কৃতিক অঙ্গনের নামীদামি তারকারা উপস্থিত হয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান তাপস পালকে। সেখানে উপস্থিত হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি তাপস পালকে গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে প্রকাশ্যে একহাত নেন বিজেপিকে।

মমতা বলেন, বিজেপির চাপে ক্ষতবিক্ষত হয়েছেন তাপস পাল। তাই অসময়ে চলে গেলেন তিনি। মমতা আরও বলেন, ‘কেন্দ্রীয় এজেন্সির চাপে (বোঝাতে চেয়েছেন সিবিআই, ইডিকে) আমাদের তিনটি প্রাণ ঝরে গেল। তাপস পাল সর্বশেষ ব্যক্তি। এ ছাড়া রয়েছেন তৃণমূল সাংসদ সুলতান আহমেদ।’

মমতা বলেন, ‘তাপস পাল চলে যাওয়ায় আমাদের সংস্কৃতি অঙ্গনের বিরাট ক্ষতি হয়ে গেল। এ ক্ষতি অপূরণীয়।’

মমতা রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সমালোচনা করে বলেন, ‘ওই সব এজেন্সি দিনে পর দিন তাপস পালকে লাঞ্ছনা করেছে, গঞ্জনা দিয়েছে। আর ওই এজেন্সির চাপে তাপস পাল মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন। হয়েছিলেন মানসিকভাবে ক্ষতবিক্ষত। এই তাপস পালকে এক বছর এক মাস ওডিশার কারাগারে থাকতে হয়েছে। এতে তিনি আরও আরও মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন।’

মমতার এই মন্তব্যকে আজই তীব্র ভাষায় নিন্দা করেছে কলকাতার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ। কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় বলেছেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর এক শিল্পীর মরদেহের সামনে দাঁড়িয়ে এ ধরনের রাজনৈতিক মন্তব্য করা সমীচীন নয়। আমি একে ধিক্কার জানাই।’ কংগ্রেস সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেছেন, মৃতদেহের সামনে দাঁড়িয়ে কারও উচিত নয় রাজনৈতিক বক্তব্য দেওয়া। এটা দুর্ভাগ্যজনক। এটি রাজনৈতিক ভাবনার বিকৃত রূপ।

গতকাল মঙ্গলবার ভোররাতে তাপস পাল প্রয়াত হন মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। গতকালই তাঁর মরদেহ আনা হয় কলকাতায়। আজ তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় কলকাতার কেওড়াতলা মহাশ্মশানে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন