default-image

ভারতের বিহার বিধানসভা নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীদের মধ্যে কোটিপতির সংখ্যাই বেশি। ২৪৩টি আসনে বিজয়ী প্রার্থীদের ৮১ শতাংশ হলেন কোটিপতি। এর শীর্ষে রয়েছে বিজেপি।

পশ্চিমবঙ্গঘেঁষা রাজ্য বিহার বিধানসভা নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে গতকাল বুধবার। ফলাফলে দেখা গেছে, বিহার রাজ্য বিধানসভার ২৪৩টি আসনের মধ্যে বিজয়ী প্রার্থীদের ৬৮ শতাংশ অর্থাৎ ১৬৩ জনের বিরুদ্ধেই বিভিন্ন ফৌজদারি অপরাধের মামলা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতের অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মস (এডিআর) বিজয়ী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামা বিশ্লেষণ করে এই তথ্য দিয়েছে।

এডিআরের প্রতিবেদনে বলা হয়, হলফনামা অনুযায়ী বিজেপির কোটিপতি প্রার্থী রয়েছে ৬৫ জন, আরজেডির ৬৪ জন, জনতা দল (সংযুক্ত) বা জেডিইউর ৩৮ জন এবং কংগ্রেসের ১৪ জন। এ বছর বিজয়ী প্রার্থীদের গড় সম্পত্তির পরিমাণ ৪ দশমিক ৩২ কোটি রুপি। ২০১৫ সালে এটি ছিল ৩ দশমিক ১৫ কোটি রুপি।

হলফনামায় ১২৩ জন প্রার্থী ফৌজদারি মামলার কথা স্বীকার করেছেন। এসব মামলার মধ্যে রয়েছে খুন, খুনের চেষ্টা, অপহরণ, নারীর ওপর অত্যাচারসহ নানান অপরাধ। ২০১৫ সালের নির্বাচনে ১৪২ জন মামলা থাকার বিষয় স্বীকার করেছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাষ্ট্রীয় জনতা দল বা আরজেডির বিজয়ী ৭৪ জনের মধ্যে মামলা রয়েছে ৫৪ জনের বিরুদ্ধে। বিজেপির ৭৩ জনের মধ্যে ৪৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। এ ছাড়া জনতা দলের (সংযুক্ত) ৪৩ জনের মধ্যে ২০ জন, কংগ্রেসের ১৯ জনের মধ্যে ১৬ জন, সিপিআইএমএলের ১২ জনের মধ্যে ১০ জন এবং এমআইএমআইএমের ৫ জনের মধ্যে ৫ জনের বিরুদ্ধেই মামলা রয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এবার বিজয়ী প্রার্থীদের মধ্যে ৮২ জন পঞ্চম–দ্বাদশ শ্রেণি পাস। ১৪৯ জনের স্নাতক ডিগ্রি রয়েছে। একজনের রয়েছে ডিপ্লোমা। ১১৫ জন বিজয়ী প্রার্থীর বয়স ২৫–৫০ বছর। ১২৬ জনের বয়স ৫১–৮০ বছর। বিজয়ী প্রার্থীদের মধ্যে নারী রয়েছেন ২৬ জন।

মন্তব্য পড়ুন 0