বিজ্ঞাপন

বস্তুত পূর্ব ভারতেই বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক হচ্ছে। আসাম থেকে কংগ্রেসের রাজ্যসভার এমপি রিপুন বরা শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে একটি চিঠিতে লিখেছেন, নিশীথ প্রামাণিকের জন্মস্থান ও নাগরিকত্বের বিষয়টি পরিষ্কার করা প্রয়োজন। বিরোধীদের বক্তব্য, নিশীথের জন্ম বাংলাদেশে এবং তিনি ভারতীয় কি না, এ নিয়ে সংশয় রয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু গতকাল বলেন, ‘তর্কের খাতিরে যদি এই অভিযোগ মেনে নেওয়া হয়, তাহলেও এটা ঠিক যে নিশীথ প্রামাণিক একজন হিন্দু। বিজেপি মনে করে, সব হিন্দুই ভারতীয়।’

ভারতের লোকসভার ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, নিশীথ প্রামাণিকের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার দিনহাটায়, ১৯৮৬ সালের ১৭ জানুয়ারি। কিন্তু এই তথ্য মানতে রাজি নয় তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যের পর্যটন প্রতিমন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন শনিবার বলেন, ‘একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশি নাগরিকত্বের অভিযোগ উঠছে। আমি দেশের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত।’ বিতর্কে যুক্ত হয়েছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুও, ‘রাজ্যসভার সাংসদ রিপুন বরা সঠিক প্রশ্ন তুলেছেন যে এমন একজন ব্যক্তিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী করার আগে কি কিছুই খতিয়ে দেখা হয়নি?’

দিন কয়েক আগে নিশীথ যখন কেন্দ্রের মন্ত্রী হন, তখন তাঁকে নিয়ে বিতর্ক সামনে আসে। কিন্তু সেই বিতর্ক প্রচারমাধ্যম থেকে আবার দ্রুত সরেও যায়। তাঁকে নিয়ে আলোচনাও থেমে যায়। কিন্তু সেই বিতর্ক আবার উসকে দেন আসামের এমপি রিপুন বরা। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের উল্লেখ করে বরা প্রধানমন্ত্রীকে একটি চিঠিতে লেখেন, নিশীথ প্রামাণিক আসলে বাংলাদেশের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার হরিনাথপুরের বাসিন্দা। কম্পিউটার কোর্স করতে ভারতে এসে তিনি আর ফিরে যাননি। প্রথমে তৃণমূলে এবং পরে বিজেপিতে যোগ দিয়ে এমপি হন।

বরা জানিয়েছেন, নিশীথ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়ার পর বাংলাদেশে তাঁর গ্রামের বাড়িতে, তাঁর পরিবারের সদস্য ও গ্রামবাসীরা উৎসব পালন করেছেন বলে সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছে। ‘এই বিষয়টি নিয়ে যে সংশয় সৃষ্টি হয়েছে, তা মেটাতে একটি স্বচ্ছ তদন্তের ব্যবস্থা করা উচিত। সেই তদন্তের মাধ্যমে নিশীথের জন্মস্থান ও নাগরিকত্বের বিষয়টি কেন্দ্রীয় সরকার স্পষ্টভাবে জানাক,’ লিখেছেন বরা।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন