default-image

ভারতে অ্যাস্ট্রাজেনেকার অতিরিক্ত উদ্বৃত্ত টিকা পাঠানোর কথা ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র। জার্মানিও করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে ভয়াবহভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ভারতে সহায়তা পাঠাতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলে জানিয়েছে। খবর এএফপির।

ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেন ও ওষুধের সংকট চলছে। রোগীদের পরিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সহায়তার জন্য আবেদন জানাচ্ছে।
যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি এবিসির ‘দিস উইক’ অনুষ্ঠানে বলেছেন, আমাদের আরও বেশি কাজ করা প্রয়োজন।

যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাস্ট্রাজেনেকার কম দামের তিন কোটি ডোজ টিকা রয়েছে। এসব টিকা দেশটিতে ব্যবহারের অনুমোদন পায়নি। ফাউসি বলেছেন, এই টিকাগুলো ভারতে ব্যবহারের বিষয়টি তাঁর বিবেচনায় রয়েছে। তিনি বলেন, ভারতে কীভাবে অক্সিজেন, ওষুধ, পিপিই, পরীক্ষার উপকরণ পাঠানো যায়, তা নিয়ে ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র। ভারতে টিকার কাঁচামাল রপ্তানির ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারকা, আন্দোলনকর্মী ও বিশেষজ্ঞরা।

বিজ্ঞাপন

ফাউসির বক্তব্যের এক দিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ভারতের জনগণ ও দেশটির স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের অতিরিক্ত সহায়তা দেবে।
জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল স্থানীয় সময় গতকাল রোববার বলেন, তাঁর সরকার ভারতে জরুরি সহায়তা দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে। মুখপাত্র স্টিফেন সেইবার্টের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে এক বার্তায় ম্যার্কেল বলেন, ‘ভারতের জনগণের প্রতি আমি আমার সমবেদনা জানাচ্ছি।’ তিনি আরও বলেন, করোনার বিরুদ্ধে এই যুদ্ধ সবার। জার্মানি ভারতের পাশে রয়েছে। ভারতকে সহায়তা দিতে জরুরি ভিত্তিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে।


জার্মানি ভারতে কী ধরনের সহায়তা পাঠাবে, তা বিস্তারিত জানায়নি। তবে জার্মানির স্থানীয় পত্রিকার খবরে জানা যায়, দেশটির সশস্ত্র বাহিনীর কাছে অক্সিজেন সরবরাহের জন্য অনুরোধ পাঠানো হয়েছে।


জার্মানি স্থানীয় সময় আজ সোমবার থেকে ভারত থেকে আসা যাত্রীদের ভ্রমণের ওপর নতুন বিধিনিষেধ জারি করেছে। মহামারির সময় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা সহায়তা দিয়েছে জার্মানি। জার্মানিতে এখন করোনাভাইরাসের সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ চলছে।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন