ভারতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) ও এর সব অঙ্গ সংগঠন। গতকাল বৃহস্পতিবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দেন। 
ভারতের আনলফুল অ্যাকটিভিটিস প্রিভেনশন অ্যাক্টের (ইউএপিএ) অধীনে নিষিদ্ধ করা হয়েছে এই জঙ্গি সংগঠন। দুই-তিন বছর ধরে, বিশেষ করে ইরাক ও সিরিয়ায় এই সংগঠন ও তাদের সহযোগী সংগঠন নৃশংস হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে।

নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের মধ্যে রয়েছে দ্য ইসলামিক স্টেট, ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড দ্য লেভাল্ট, ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড সিরিয়া ইত্যাদি।

যদিও ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং গত ১৬ ডিসেম্বর সংসদে ঘোষণা দিয়েছিলেন জাতিসংঘের সূচি মেনে ভারত মধ্যপ্রাচ্যের এই জঙ্গি সংগঠনকে নিষিদ্ধ করেছে।

২০১৪ সালে আইএসে যোগ দিতে মহারাষ্ট্রের চার যুবক ইরাক ও সিরিয়ায় যান। তাঁদের মধ্যে একজন দেশে ফিরে এলেও বাকি তিনজনের হদিস মেলেনি। তা ছাড়া আইএসপন্থী একটি টুইটার চালানোর অভিযোগে একটি বহুজাতিক সংস্থায় কর্মরত বেঙ্গালুরুর এক যুবককে গত বছরের ডিসেম্বর মাসে গ্রেপ্তার করা হয়। গত মাসে আইএসে যোগ দিতে সিরিয়ায় যাওয়ার আগে এক যুবককে হায়দরাবাদ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। 
এই জঙ্গি সংগঠনকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে রাজনাথ সিং বলেন, আইএসে ভারতীয় যুবকদের যোগ দেওয়ার বিষয়টি গভীর উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন