default-image

ভারতে নোভাভ্যাক্সের টিকার ট্রায়াল করতে চায় সেরাম ইনস্টিটিউট। আজ শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

নোভাভ্যাক্সের টিকার ট্রায়াল ভারতে চালানোর অনুমতি চেয়ে দেশটির কর্তৃপক্ষের কাছে ইতিমধ্যে আবেদন করেছে সেরাম ইনস্টিটিউট।

সেরাম ইনস্টিটিউট ভারতে ছোট পরিসরে নোভাভ্যাক্সের টিকার ট্রায়াল চালাতে চায়।

নোভাভ্যাক্সের টিকার ট্রায়াল চালানোর বিষয়ে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে দ্রুত ইতিবাচক সিদ্ধান্ত পাওয়ার আশা করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। আজ শুক্রবার সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী আদর পুনাওয়ালা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ কথা বলেছেন।

নোভাভ্যাক্স টিকা প্রস্তুতকারী মার্কিন প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির করোনার টিকার কার্যকারিতার তথ্য প্রকাশের কয়েক ঘণ্টার মাথায় ভারতে তার ট্রায়াল-সম্পর্কিত বিষয়ে কথা বলেন পুনাওয়ালা।

যুক্তরাজ্যে বৃহৎ পরিসরে নোভাভ্যাক্সের টিকার ট্রায়াল চালানো হয়। এই ট্রায়ালের ফলাফলে দেখা গেছে, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে নোভাভ্যাক্সের টিকা ৮৯ দশমিক ৩ শতাংশ কার্যকর। নোভাভ্যাক্সের পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়।

শুধু তা-ই নয়, যুক্তরাজ্যে করোনার যে নতুন ধরন (স্ট্রেইন) শনাক্ত হয়েছে, তার বিরুদ্ধেও নোভাভ্যাক্সের টিকা কার্যকর বলে দেখা গেছে।

বিশ্বে নোভাভ্যাক্সের টিকাই প্রথম, যা ট্রায়ালে যুক্তরাজ্যে শনাক্ত করোনার নতুন ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকারিতা দেখাল।

বিজ্ঞাপন

নোভাভ্যাক্সের টিকার এই কার্যকারিতার বিষয়টিকে ‘সুখবর’ হিসেবে অভিহিত করেছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি জানিয়েছেন, এখন যুক্তরাজ্যের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা এই টিকা যাচাই করে দেখবে।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউট। তারা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ভারতে ‘কোভিশিল্ড’ নামে স্থানীয়ভাবে উৎপাদন করছে।

জানুয়ারির শুরুর দিকে ভারতের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা করোনার দুটি টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। একটি সেরাম ইনস্টিটিউটে প্রস্তুতকৃত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ‘কোভিশিল্ড’, অন্যটি ভারত বায়োটেকের ‘কোভ্যাক্সিন’।

নোভাভ্যাক্সের টিকার প্রসঙ্গে সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী আদর পুনাওয়ালা বলেন, ভারতে এই টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালানোর জন্য তাঁরা ইতিমধ্যে দেশটির ওষুধ নিয়ন্ত্রকের কাছে আবেদন করেছেন। দিন কয়েক আগেই এই আবেদন করা হয়।

আদর পুনাওয়ালা বলেন, এখন নোভাভ্যাক্সের টিকার ট্রায়াল চালানোর জন্য ভারতের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থার শিগগির অনুমোদন দেওয়া উচিত।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন