default-image

ভারতে কৃষক বিক্ষোভ ঘিরে লালকেল্লায় সহিংসতার ঘটনায় অভিনেতা-অ্যাকটিভিস্ট দীপ সিধুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

পুলিশ আজ মঙ্গলবার দীপ সিধুকে গ্রেপ্তারের তথ্য জানায়। দীপ সিধুসহ চারজনকে ধরিয়ে দিতে পুলিশ পুরস্কার ঘোষণা করেছিল।

পুলিশ বলছে, প্রজাতন্ত্র দিবসে নয়াদিল্লিতে কৃষকদের ডাকা ট্রাক্টরমিছিলের কর্মসূচি ঘিরে লালকেল্লায় বিশৃঙ্খলা ও সহিংসতায় দীপ সিধুর ভূমিকা রয়েছে।

লালকেল্লায় সহিংসতার ঘটনায় দিল্লি পুলিশ আগেই দীপ সিধুর নামে এফআইআর দায়ের করে। এই এফআইআরে অ্যাকটিভিস্ট লাখা সিধানার নামও আছে।

৩৬ বছর বয়সী দীপ সিধুকে দিল্লি পুলিশের অপরাধ শাখা খুঁজছিল। গ্রেপ্তার হওয়ার আগে তিনি আত্মপক্ষ সমর্থন করে ফেসবুকে একাধিক ভিডিও পোস্ট করেন। ভিডিওগুলো বিদেশ থেকে তাঁর বন্ধুরা আপলোড করেন বলে জানায় পুলিশ।

ভারতে চলমান কৃষক আন্দোলনে দীপ সিধুর ভূমিকা নিয়ে বিতর্ক আছে। তাঁর বিরুদ্ধে কৃষকদেরও অভিযোগ আছে। তাঁদের ভাষ্য, দীপ সিধু কৃষক আন্দোলন ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করেছেন। তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগও তুলেছেন কৃষকেরা।

বিজ্ঞাপন
default-image

গত ২৬ জানুয়ারি ছিল ভারতের ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবস। বিতর্কিত তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে এদিন নয়াদিল্লির রাজপথে ট্রাক্টরমিছিলের কর্মসূচি দেন দেশটির আন্দোলনরত কৃষকেরা।

কৃষকদের ট্রাক্টরমিছিলের কর্মসূচির অনুমতিও দেয় পুলিশ। তবে হাজারো কৃষক প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেড চলাকালেই নয়াদিল্লির বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে রাজধানীতে ঢুকে পড়েন। পুলিশ বাধা দিলে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষের মধ্যেই শত শত কৃষক নয়াদিল্লির কেন্দ্রে পৌঁছে যান। তাঁরা লালকেল্লায় ঢুকে পড়েন। কেউ কেউ লালকেল্লার ওপরে উঠে পড়েন। সেখানেও কৃষক-পুলিশ সংঘর্ষ হয়।

নয়াদিল্লিতে সহিংসতার ঘটনায় দিল্লি পুলিশ মোট ৪৪টি মামলা করেছে। এসব মামলায় কৃষকনেতা, কৃষক, রাজনীতিক, সাংবাদিক, অ্যাকটিভিস্টদের আসামি করা হয়েছে। এই মামলায় ১২০ জনের বেশি ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ভারতে বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে দেশটির কৃষকেরা কয়েক মাস ধরে আন্দোলন করে আসছেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন