ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ৮৭৫ জন মারা গেছে। আক্রান্ত হয়েছে ১৪ হাজার ৬৭৩ জন। গতকাল মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জে পি নাড্ডা এ কথা জানিয়েছেন।

লোকসভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ১ থেকে ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত সোয়াইন ফ্লুতে উল্লিখিত সংখ্যক ব্যক্তি মারা যায়। ২০০৯-১০ সালে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল ৫০ হাজারের বেশি মানুষ। মারা গিয়েছিল দুই হাজারের বেশি।
সোয়াইন ফ্লু ঠেকাতে ভারতের গুজরাটের আহমেদাবাদে গতকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। গুজরাটে সোয়াইন ফ্লুতে এ পর্যন্ত মারা গেছে ২৩১ জন।

সোয়াইন ফ্লুর ভাইরাস সাধারণত জনবহুল এলাকায় মানুষের মুখ ও নাক দিয়ে শরীরে প্রবেশ করে। আহমেদাবাদে ১৪৪ ধারা জারির ফলে আপাতত এই শহরে আর জনসভা বা ভিড়ের সুযোগ থাকছে না।

গতকাল পর্যন্ত এই ভাইরাসে পশ্চিমবঙ্গে মারা গেছে পাঁচজন। সোয়াইন ফ্লু রোধে পশ্চিবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শূকর হটানোর ডাক দিয়েছেন। রাজ্য সরকারের এই নির্দেশ ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন পৌরসভায়ও পৌঁছে গেছে। গত বছর রাজ্য সরকার শূকর হটানোর ডাক দিলে পৌরসভার কর্মীরা ২৫০টি শূকর ধরতে পেরেছিল। যদিও রাজ্য সরকারের শূকর ধরার লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১০ হাজার।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন