ভারতে ‘স্পুটনিক-৫’ টিকা উৎপাদনে রাজি রাশিয়া

ভারতে করোনাভাইরাসের ‘স্পুটনিক-৫’ টিকা উৎপাদনে রাজি হয়েছে রাশিয়া। আজ শুক্রবার এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

রাশিয়ার উদ্ভাবিত ‘স্পুটনিক-৫’ টিকার অফিশিয়াল টুইটারে এ বিষয়ে আজ একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, রাশিয়ান ডাইরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড (আরডিআইএফ) ও ভারতের ওষুধ কোম্পানি হেটেরো ২০২১ সালের শুরুর দিকে ভারতে ‘স্পুটনিক-৫’ টিকা উৎপাদনের পরিকল্পনা নিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আরডিআইএফ ও হেটেরো ভারতে বছরে ১০০ মিলিয়ন ডোজের বেশি করোনার টিকা উৎপাদনে সম্মত হয়েছে।

‘স্পুটনিক-৫’ টিকা উৎপাদনের পর তা বিশ্ব বাজারে সরবরাহ করবে আরডিআইএফ ও হেটেরো। এই লক্ষ্যে তারা কাজ করছে।

‘স্পুটনিক-৫’ টিকার টুইটারে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়, ভারতে এই টিকার পরীক্ষা (ট্রায়াল) চলছে।

গত আগস্টে রাশিয়া প্রথম ‘স্পুটনিক-৫’ টিকার অনুমোদন দেয়। এটি বিশ্বে রাষ্ট্রীয় অনুমোদন পাওয়া প্রথম করোনার টিকা।

অক্টোবরের মাঝামাঝি রাশিয়া করোনার দ্বিতীয় টিকার অনুমোদন দেয়। দ্বিতীয় টিকাটির নাম ‘এপিভ্যাককরোনা’। তৃতীয় টিকার শিগগিরই নিবন্ধন দেবে বলে জানিয়েছে রাশিয়া।

রাশিয়ার ভাষ্য, তাদের উদ্ভাবিত ‘স্পুটনিক-৫’ টিকাটি ৯৫ শতাংশ কার্যকর।

দেশটি বলছে, অন্য দেশের উদ্ভাবিত করোনার টিকার চেয়ে তাদের টিকার দাম অনেক কম পড়বে।

রাশিয়ার দাবি, তাদের টিকা কার্যকর ও নিরাপদ।

তবে পরীক্ষার সব ধাপ শেষ না করেই অনুমোদন দেওয়ায় রাশিয়ার করোনার টিকা নিয়ে পশ্চিমা গবেষকদের মধ্যে সন্দেহ আছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন