বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পশ্চিমবঙ্গে রেশন ডিলার আছে ২১ হাজার। প্রতিটি পরিবারের হাতে রেশন পৌঁছে দেওয়ার কথা ডিলারদের। কিন্তু সরকারের সিদ্ধান্তে ডিলারদের একাংশ ক্ষুব্ধ। তাঁদের দাবি, এভাবে ঘরে ঘরে গিয়ে রেশন বিতরণ করাটা অসম্ভব। রেশন বিতরণের কোনো অবকাঠামোও নেই। দুয়ারে রেশন নয়, দোকানে এসে রেশন নিন।

এই দাবিতে অনড় ডিলারদের একাংশ কলকাতা হাইকোর্ট ও ভারতের সুপ্রিম কোর্টেরও শরণাপন্ন হন। তবে আদালত থেকে কোনো ইতিবাচক সাড়া পাননি তাঁরা।

রাজ্য সরকার এখনো ডিলারদের দাবি নিয়ে মুখ খোলেনি। এ কারণে রেশন প্রকল্প নিয়ে ডিলাররা দুই ভাগ হয়ে যান। রাজ্য সরকারও ডিলারদের একাংশের দাবি আমলে না নিয়ে রেশন প্রকল্প চালু করে। এতে করে রেশন ডিলারদের ক্ষোভ প্রশমিত না হয়ে বরং বাড়তেই থাকে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে গত সোমবার কলকাতার রানী রাসমণি অ্যাভিনিউতে রেশন ডিলাররা একটি প্রতিবাদ সভা করেন। সেখানে দাবি তাঁরা তোলেন, ‘দুয়ারে রেশন নয়, বরং রেশন নিতে দোকানে আসুন।’

গত মঙ্গলবার জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার্সের যুগ্ম সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু বলেন, ‘বাড়ি বাড়ি গিয়ে সবাইকে রেশন দেওয়া সম্ভব নয়। আমরা আগেই বিষয়টি রাজ্য সরকারকে জানিয়েছিলাম। প্রস্তাব দিয়েছি, যাঁরা দোকানে এসে রেশন নিতে পারবেন না, শুধু তাঁদের রেশন বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এ বিষয়ে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের জন্য আগামী ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করব। এরপর পরবর্তী আমাদের কর্মসূচি ঠিক করব।’

তবে রাজ্য সরকার গাড়ি কেনার জন্য প্রত্যেক ডিলারকে এক লাখ করে রুপি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু ডিলাররা গাড়ির জন্য সেটা নিতে এখনো রাজি হননি।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন