ওই অনুপ্রবেশকারীর পরিবারের সদস্যরা বলেন, তিনি পেশায় গাড়িচালক ছিলেন। সম্প্রতি তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন। কয়েক মাস ধরে তাঁর চিকিৎসা চলছে।

ওই ব্যক্তির ভাই বলেন, কয়েক মাস আগে একটি মানসিক রোগে আক্রান্ত হন তিনি (অনুপ্রবেশকারী)। তখন থেকে অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন।

অনুপ্রবেশকারীর বাবা বলেন, কয়েক মাস আগে তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে রাজ্যের সচিবালয় নবান্নে অনুপ্রবেশের চেষ্টা অভিযোগ উঠেছিল। পুলিশ তাঁকে তখন ঠেকিয়ে দিয়েছে।

এই ঘটনার পর রাজ্যজুড়ে প্রশ্ন উঠেছে, কীভাবে একজন মানুষ রাতের বেলা মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে ঢুকে পড়তে পারেন? কারণ, মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবন নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকে সব সময়।

পুলিশ বলছে, ওই ব্যক্তির শার্টের নিচে একটি লোহার রড রাখা ছিল। এ ঘটনার পেছনে কোনো খারাপ উদ্দেশ্য ছিল কি না, তা নিশ্চিত হতে তদন্ত প্রয়োজন বলে মনে করছে তারা।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন