default-image

জয়ী হওয়ার পর সরকার গঠনে দেরি করতে চাইছেন না পশ্চিমবঙ্গের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ সোমবার বিকেলেই তিনি বৈঠকে বসছেন জয়ী বিধায়কদের সঙ্গে। নতুন মন্ত্রিসভায় পুরোনো মন্ত্রী বাদ পড়তে পারেন। স্থান হতে পারে বয়সে নবীনদের।

আজ বেলা ৩টায় বিধায়কদের নিয়ে বৈঠক হবে মমতার দলীয় কার্যালয় কলকাতার বাইপাসের কাছের তৃণমূল ভবনে। সেখানেই মমতা নতুন সরকারের রূপরেখা দেবেন। কাজের কথা বলবেন।  রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবেন। করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা বলবেন। বিধায়কদের নিয়ে করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন কমিটিও গঠন করতে পারেন।

গতকাল রোববার ফল ঘোষণার পরই মমতা বলেছেন, তাঁর নতুন সরকারের প্রথম কাজ হবে বাংলা থেকে করোনাকে পরাস্ত করা।

এদিকে এই বৈঠকে নতুন মন্ত্রিসভা গঠনের কথাও বলতে পারেন মমতা। জানা গেছে, এবারের মন্ত্রিসভায় পুরোনো সব মন্ত্রীরা যে ঠাঁই পাবেন, এমনটা না–ও হতে পারে।

তৃণমূলের অভ্যন্তরের খবর, মমতা চাইছেন কিছু তরুণ বিধায়ককে এই মন্ত্রিসভায় ঠাঁই দিতে; যাতে রাজ্য সরকারের কাজের গতি বাড়ে।

বিজ্ঞাপন

আজ বিকেলে জয়ী বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠক করে মমতা চলে যাবেন রাজভবনে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করতে। সেখানেই মমতা প্রস্তাব দেবেন নতুন সরকার গঠনের। সেই সঙ্গে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানের। জানা যাচ্ছে, মমতা করোনার কারণে এবার আর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বৃহৎ পরিসরে করতে চাইছেন না। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান করতে চাইছেন রাজভবনেই।

২০১১ সালে মমতা যখন প্রথম ক্ষমতায় আসেন, তখন প্রথম মন্ত্রিসভার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হয়েছিল এই রাজভবনে। ২০১৬ সালে মমতা দ্বিতীয়বারের জন্য নির্বাচনে জিতলে সেবার মন্ত্রিসভার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হয়েছিল কলকাতার প্রাণকেন্দ্র ধর্মতলার রেড রোডে।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন