default-image

করোনায় মহারাষ্ট্র রাজ্যে গতকাল রোববার এক দিনে রেকর্ড মৃত্যু হয়েছে। এদিন মহারাষ্ট্রে ৮৩২ জন করোনায় সংক্রমিত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে মুম্বাইয়ে মারা গেছেন ৬৪ জন।

মহারাষ্ট্রে এ মুহূর্তে ৬ লাখ ৯৮ হাজার ৩৫৪ জন করোনা রোগীর চিকিৎসা চলছে। আর সক্রিয় করোনা রোগীর পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে মহারাষ্ট্র বিশ্বের চতুর্থ স্থানে আছে। করোনার সংক্রমণ মোকাবিলায় নানাভাবে তৎপর হচ্ছে মুম্বাই মহানগর পালিকা। টিকাদান কর্মসূচি নিয়ে জোরেশোরে মাঠে নেমেছে তারা। বেশি সংখ্যক মানুষ যাতে টিকা পান, সেই পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে মহানগর পালিকা।

মুম্বাইয়ের মেয়র কিশোরী পেডনেকর বলেন, আগামী ১ মে থেকে টিকাদানের তৃতীয় দফা শুরু হবে। মুম্বাইয়ের কিছু এলাকায় ভ্রাম্যমাণ টিকাদান কর্মসূচি শুরু করা হবে। তবে মেয়র বলেন, মানুষের দরজায় দরজায় এ মুহূর্তে টিকা কর্মসূচি শুরুর কোনো পরিকল্পনা তাঁদের নেই। কিছু এলাকায় মোবাইল ভ্যান দাঁড়িয়ে থাকবে। আর সেখানে টিকা নিতে পারবে সাধারণ মানুষ। নিবন্ধন ছাড়া অ্যাপের সাহায্যে টিকা নেওয়া যাবে।

বিজ্ঞাপন

পেডনেকর আরও বলেন, ‘মুম্বাইয়ের হাসপাতালগুলোয় পর্যাপ্ত পরিমাণ কোভ্যাক্সিন ডোজ আছে। আশা করছি, আগামী দু-এক দিনের মধ্যে কোভিডশিল্ডের ডোজও পাওয়া যাবে।’

মুম্বাইয়ে অক্সিজেনের চাহিদা ক্রমে বেড়েই চলেছে। আর তাই মুম্বাই ও তার আশপাশে ১৪টি অক্সিজেন প্ল্যান্ট লাগানো হবে। জানা গেছে, এই প্ল্যান্টগুলো থেকে প্রতি মিনিটে ৯৬০ লিটার এবং রোজ ২ টন অক্সিজেন তৈরি করা হবে। মুম্বাইয়ের পাশে কল্যাণ, ডোম্ববলি, উল্লাসনগর, বদলপুর, অম্বরনাথ, ভয়ন্দর, ভিরার ও নাভি মুম্বাইতে এই প্ল্যান্টগুলো নির্মাণ করা হবে। মুম্বাইয়ের ব্যবসায়ী কেতন রাওল মুম্বাই পুলিশের জন্য বিনা মূল্যে ভ্যানিটি ভ্যানের ব্যবস্থা করেছেন। এই ভ্যানিটি ভ্যানগুলোয় বিছানা, শৌচালয়, ড্রেসিং টেবিল, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত শয্যা আছে। মুম্বাই পুলিশ কর্মীরা কাজের ফাঁকে এখানে বিশ্রাম নিতে বা নিজের পোশাক বদল করতে পারবেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন