বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শনিবার বিকেলে শ্যামলী যাত্রী পরিবহন সংস্থার কর্ণধার অবণী কুমার ঘোষ এ কথা জানিয়েছেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেছেন, ‘আমরা আবার কলকাতা-ঢাকা-কলকাতার মধ্যে যাত্রীবাহী বাস চালু করার অনুমতি পেয়েছি। আমরা চাইছি, এই বাস পরিষেবা ৩০ মার্চ অথবা ৪ এপ্রিল আবার চালু করতে। এ জন্য আমরা যথাযথ উদ্যোগও নিয়েছি।’

সরকারের পক্ষ থেকে বাস চালানোর বিষয়ে অনুমতি পাওয়া গেছে জানিয়ে অবণী কুমার আরও বলেন, কবে নাগাদ বাস চালু করা যাবে, সে বিষয়ে মতামত চেয়ে রাজ্যের পরিবহন দপ্তরে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। সম্মতি পেলেই সেদিন থেকে বাস চালু হবে।

দুই বছর পর এই পরিষেবা চালু হলেও বাসভাড়া আগের মতোই থাকবে। প্রতিদিন সকাল সাতটায় সল্ট লেকের করুণাময়ীর কাউন্টার থেকে বাস ছাড়বে। অন্যদিকে ঢাকা থেকেও একই সময় ছাড়বে বাস। কলকাতা থেকে শ্যামলী পরিবহনের বাস সোম, বুধ ও শুক্রবার চলবে। আর ঢাকা থেকে মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার কলকাতার উদ্দেশে বাস ছাড়বে।

কলকাতা থেকে বাকি তিন দিন—মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার এই পথে বাস চালাবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সংস্থা (বিআরটিসি)। রোববার কোনো দেশেরই বাস চলবে না। তবে বিআরটিসি কবে থেকে বাস চালাবে, সেটি জানা যায়নি।

অবণী ঘোষ আরও বলেছেন, সপ্তাহের তিন দিন কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা রুটেও বাস চলবে। কলকাতা থেকে দুপুর ১২টায় ছাড়বে আগরতলার বাস। আর আগরতলা থেকে বিকেল ৪টায় ছাড়বে কলকাতার উদ্দেশে।

১৯৯৯ সালের ১৯ জুন কলকাতা-ঢাকার মধ্যে প্রথম শুরু হয়েছিল যাত্রীবাহী বাস চলাচল। আর আগরতলা-কলকাতা রুটে বাস চলাচল শুরু হয় ২০১৫ সাল থেকে।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন