default-image

এক ব্রিটিশ দাতব্যকর্মী এ পর্যন্ত ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু ও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বেঁচে গেছেন। সবশেষ তাঁকে বিষধর গোখরা সাপ কামড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এবারও তিনি সেরে উঠছেন। আজ রোববার বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

ওই ব্রিটিশ দাতব্যকর্মীর নাম ইয়ান জোন্স। তিনি এখন ভারতের রাজস্থান রাজ্যে আছেন।

ইয়ান জোন্সের ছেলে সেব জোন্সের ভাষ্য, তাঁর বাবা একজন লড়াকু। তিনি ভারতে অবস্থানকালে ইতিমধ্যে ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু ও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে সব ক্ষেত্রই তিনি সেরে উঠেছেন।

বিজ্ঞাপন

খবরে বলা হয়, ইয়ান জোন্স রাজস্থানের যোধপুর জেলায় গোখরো সাপের ছোবল খান বলে মনে করা হচ্ছে। পরে তিনি যোধপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি হন।

স্থানীয় মেডিপালস হাসপাতালে ইয়ান জোন্সের চিকিৎসা করেন চিকিৎসক অভিষেক তাতার। তিনি গতকাল শনিবার বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, এলাকার একটি গ্রাম থেকে সাপের কামড় খেয়ে দিন সাতেক আগে জোন্স হাসপাতালে আসেন। প্রথমে সন্দেহ করা হচ্ছিল, তিনি করোনায়ও আক্রান্ত (দ্বিতীয়বার) হয়েছেন। তবে পরীক্ষায় তাঁর করোনা নেগেটিভ আসে।

চিকিৎসক অভিষেক বলেন, চিকিৎসাধীন অবস্থায় জোন্সের জ্ঞান ছিল। তাঁর মধ্যে সাপের কামড় খাওয়ার উপসর্গ ছিল।

চিকিৎসকেরা ইতিমধ্যে জোন্সকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দিয়েছেন। চিকিৎসক অভিষেক বলেন, তাঁরা মনে করেন, সাপের কামড়ে জোন্সের দীর্ঘমেয়াদি কোনো প্রভাব থাকবে না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0