default-image

ভারতে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে রাশিয়ার তৈরি টিকা স্পুতনিক–ভি ব্যবহারের অনুমোদনের সুপারিশ করেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি। এখন প্রয়োজন চূড়ান্ত অনুমোদন। তাহলেই স্পুতনিক–ভি হবে ভারতে ব্যবহারের অনুমোদন পাওয়া করোনার তৃতীয় টিকা। ভারতীয় গণমাধ্যম ইকোনমিক টাইমসের বরাতে আজ সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

সংশ্লিষ্ট দুটি সূত্রের বরাতে গণমাধ্যমের খবর, করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে সেন্টাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অরগানাইজেশনের (সিডিএসসিও) বিশেষজ্ঞ দল ভারতে স্পুতনিক–ভি ব্যবহারে অনুমোদনের সুপারিশ করেছে। এখন ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই) চূড়ান্ত অনুমোদন দিলে ভারতে টিকাটির ব্যবহারে আর কোনো বাধা থাকবে না।

এর আগে ভারতে অক্সফোর্ড–অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কোভিশিল্ড ব্যবহারের অনুমোদন পেয়েছিল। ভারতীয় প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউট এ টিকা উৎপাদন করছে। দেশটিতে আগেই অনুমোদন পেয়েছে স্থানীয় প্রতিষ্ঠান ভারত বায়োটেকের উদ্ভাবিত করোনার টিকা কোভ্যাক্সিন।

মস্কোর গামালিয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট স্পুতনিক–ভি টিকাটি উদ্ভাবন করেছে। প্রাথমিক ট্রায়ালের পর বলা হয়েছিল, এটি কোভিড–১৯ প্রতিরোধে ৯১ দশমিক ৬ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকর। এখন পর্যন্ত ৫০টির বেশি দেশ করোনা প্রতিরোধে রাশিয়ার টিকা স্পুতনিক–ভি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতে টিকাটির উৎপাদন ও বাজারজাতে যুক্ত থাকবে ডা. রেড্ডি’স ল্যাবরেটরিজ। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি প্রতিষ্ঠানটি ভারতে স্পুতনিক–ভি ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছিল। স্থানীয়ভাবে টিকাটির ৭৫ কোটির বেশি ডোজ উৎপাদনে ছয়টি ভারতীয় প্রতিষ্ঠান এরই মধ্যে চুক্তি সই করেছে।

ভারতে এখন করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। সংক্রমণের দিক দিয়ে দেশটি ব্রাজিলকে ছাড়িয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের পরই এখন ভারতের অবস্থান। করোনার হালনাগাদ তথ্য প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তালিকা অনুসারে, ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট সংক্রমিত হয়েছেন ১ কোটি ৩৫ লাখ ২৫ হাজার ৩৭৯ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার ২০৯ জনের।

অন্যদিকে ব্রাজিলে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ১ কোটি ৩৪ লাখ ৮২ হাজার ৫৪৩ জন। দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৫৩ হাজার ২৯৩ জনের। সংক্রমণে ভারত দ্বিতীয় হলেও মৃত্যু হারে এখনো ব্রাজিল এগিয়ে রয়েছে। রেকর্ড সংক্রমণ ঠেকাতে ভারতবাসীকে গণহারে টিকা দিতে দেশজুড়ে ‘টিকা উৎসব’ শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন