ভারতের আইপিএলের সাবেক কমিশনার ললিত মোদি এবার কংগ্রেসের সহসভাপতি রাহুল গান্ধীর নাম জড়ালেন। তাঁর দাবি, রাহুল এবং তাঁর বোন প্রিয়াঙ্কার স্বামী রবার্ট ভদ্র আইপিএল চলাকালীন তাঁর আতিথেয়তা নিয়েছেন। ললিতের প্রশ্ন, এই আতিথেয়তা গ্রহণের বিষয়টি রাহুল কি কংগ্রেস দলকে জানিয়েছিলেন?
গতকাল শনিবার একাধিক টুইটে ললিত এই দাবির সমর্থনে একটি ছবিও পাঠিয়েছেন। তাতে দেখা যাচ্ছে, রাহুলের সঙ্গে পাশাপাশি বসে খেলা দেখছেন রবার্ট ভদ্র। তাঁদের পাশে শাহরুখ খান, তাঁর স্ত্রী গৌরী ও দীপিকা পাড়ুকোন। রাহুলের পেছনেই ললিত। দুজনের কানেই মুঠোফোন। যেখানে বসে তাঁরা খেলা দেখছেন, ললিতের দাবি, সেটা তাঁর বক্স।
ললিতের এই দাবি নিয়ে কংগ্রেস তাৎক্ষণিকভাবে কিছু বলেনি। তবে দলের মুখপাত্র অজয় মাকেন গতকাল বলেছেন, ‘ললিত বিজেপিকে সাহায্য করতে উঠেপড়ে লেগেছেন। ছোট মোদি বড় মোদিকে সাহায্য করছেন।’
ললিত এর আগে প্রিয়াঙ্কা ও রবার্টের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের উল্লেখ করে বলেছিলেন, লন্ডনে একটি রেস্তোরাঁয় তাঁর সঙ্গে ওই দম্পতির দেখা হয়েছিল। কংগ্রেস তার জবাবে বলেছিল, কোনো রেস্তোরাঁয় কারও সঙ্গে কারও দেখা হওয়া মানেই সামাজিক সম্পর্ক থাকা বোঝায় না। কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে ওঁদের দেখা হয়নি।
এর কয়েক দিন পর ললিত আর একটি টুইটে বিজেপি নেতা বরুণ গান্ধীকে জড়ান। তাঁর দাবি ছিল, কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক ঠিক করিয়ে দিতে বরুণ মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা নিতে চেয়েছিলেন। তাঁকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন সোনিয়া গান্ধীর বোনের সঙ্গে কথা বলতে। মিটমাটের জন্য উদ্যোগী হওয়ার প্রস্তাব দিয়ে বরুণ নাকি বলেছিলেন, ললিতকে সে জন্য ছয় কোটি ডলার খরচ করতে হবে। বরুণ সেই অভিযোগ অসত্য বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন।
আইপিএলের আর্থিক দুর্নীতিতে অভিযুক্ত ললিত মোদিকে নানাভাবে সাহায্য করার জন্য ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ও রাজস্থানের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে এই মুহূর্তে বিতর্কের কেন্দ্রে। কংগ্রেসসহ বেশ কয়েকটি দল তাঁদের ইস্তফার দাবি তুলেছে। এই অবস্থায় ভারতীয় সংসদের বর্ষাকালীন অধিবেশন আদৌ চলতে পারবে কি না, তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0