এর আগে আগে অবশ্য ফুলবাগান থেকে শিয়ালদহ পথেরও উদ্বোধন করা হয়। ফলে আজ উদ্বোধন করা হয় শিয়ালদহ থেকে সল্টলেকের সেক্টর ফাইভ পর্যন্ত রেলপথের। অদূর ভবিষ্যতে উদ্বোধন হবে এই সেক্টর ফাইভ থেকে হাওড়া ময়দান পর্যন্ত সাড়ে ১৬ কিলোমিটার পর্যন্ত নদীর তলদেশ থেকে নেওয়া মেট্রো রেলপথের। বৃহস্পতিবার থেকে ট্রেন চলবে শিয়ালদহ থেকে সেক্টর ফাইভ পর্যন্ত। তারপর অদূর ভবিষ্যতে চলবে সেক্টর ফাইভ থেকে হাওড়া ময়দান পর্যন্ত।

default-image

এদিকে এই রেলপথের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে আমন্ত্রণ না জানানোয় ক্ষুব্ধ হন পশ্চিমবঙ্গ সরকারসহ শাসক দলের নেতারা। এরপরই গতকাল রেল কর্তৃপক্ষ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ আমন্ত্রণ জানায় পরিবহনমন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম, মন্ত্রী অরূপ রায়, সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, স্থানীয় বিধায়ক নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বর্ণকমল সাহা ও পরেশ পালকে। কিন্তু তাঁরা কেউ আজ অনুষ্ঠানে যোগ দেননি।

এই রেলপথ তৈরির মূল পরিকল্পনা ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তিনি রেলমন্ত্রী থাকাকালীন এই মেট্রো রেলপথ তৈরির উদ্যোগ নেন। এই রেলপথ তৈরির জন্য রাজ্য সরকার জমি অধিগ্রহণ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করে। কিন্তু এই রেলপথ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আর আমন্ত্রণ পেলেন না রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কলকাতা মেট্রো বা পাতালরেলের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল ১৯৭১ সালে। প্রথম তৈরি হয় ধর্মতলা থেকে ভবানীপুর (বর্তমান নেতাজি ভবন) পর্যন্ত রেলপথ। ১৯৮৪ সালের ২৪ অক্টোবর প্রথম এই পথের মেট্রোরেলের উদ্বোধন হয়।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন