বাড়িতে শৌচাগার বানানোর জন্য বারবার অনুরোধ করছিল খুশবু কুমারী (১৭)। কথা কানে তোলেননি বাবা-মা। এ নিয়ে ঝগড়াও হয়েছে। গতকাল শুক্রবার মেয়েটি গলায় ফাঁস দিয়েছে। ভারতের ঝাড়খন্ডের দুমকা জেলায় এ ঘটনা ঘটে।
এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওই কিশোরী দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী ছিল। গতকাল বাড়ির নিজ কক্ষের সিলিংয়ে তার ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়।
পরিবারের সদস্যদের ভাষ্যের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, নিয়মিত খোলা জায়গায় কাজ সারতে বিব্রতবোধ করছিল ওই মেয়েটি। এ জন্য সে বাড়িতে একটি শৌচাগার নির্মাণে বাবা-মায়ের কাছে বেশ কয়েকবার অনুরোধ জানিয়েছিল। কিন্তু মেয়ের বিয়ের জন্য অর্থ জমানোর অজুহাতে বাবা-মা শৌচাগার নির্মাণ করেননি। বাবা-মা অনুরোধ না রাখায় গতকাল মেয়েটি এ পথ বেছে নেয়। ঘটনার সময় বাবা-মা বাড়িতে ছিলেন না।
এ খবরের পরিপ্রেক্ষিতে আজ সকালে কংগ্রেসের জ্যেষ্ঠ নেতা দিগ্বিজয় সিং টুইটারে লিখেছেন, বাবা-মা শৌচাগার নির্মাণ করতে অস্বীকৃতি জানানোয় ঝাড়খন্ডে একটি মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। জাতি হিসেবে ভারতের জেগে ওঠা উচিত। শৌচাগার নির্মাণকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত।’
২০১১ সালের আদমশুমারির তথ্যমতে, ঝাড়খন্ডের গ্রামীণ এলাকার ৯২ দশমিক ৪ শতাংশ মানুষের শৌচাগার নেই।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0