default-image

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় টালমাটাল অবস্থা মুম্বাইসহ পুরো মহারাষ্ট্রের। প্রতিদিনই রোগী বাড়ছে রেকর্ড পরিমাণ। বাড়ছে মৃত্যুও। এ পরিস্থিতিতে সংক্রমণের লাগাম টানতে রাজ্যজুড়ে চলমান লকডাউন ১৫ মে পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার। আজ বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের সভাপতিত্বে আজ রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠক শেষে মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপে জানান, আজকের বৈঠকে সব মন্ত্রী মিলে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ১৫ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছিলেন। তিনি এ প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

সংক্রমণের লাগাম টানতে ১৮–৪৫ বছর বয়সী সবাইকে বিনা মূল্যে করোনার টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার। এ প্রকল্প এগিয়ে নিতে টিকা কেনার জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ৫০০ কোটি রুপি। ৬ মাসের মধ্যে মহারাষ্ট্রের ১৮–৪৫ বছর বয়সী ৫ কোটি ৭১ লাখ মানুষকে টিকা দিতে চায় রাজ্য সরকার। এ জন্য ১২ কোটি ডোজ টিকা কেনার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

তবে পর্যাপ্ত টিকা না থাকায় এ উদ্যোগ এখনই শুরু করা সম্ভব হবে না। রাজেশ তোপে বলেন, এই মুহূর্তে রাজ্যজুড়ে টিকার অভাব দেখা দিয়েছে। তাই ১ মে থেকে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের টিকা দেওয়া শুরু করা সম্ভব হবে না। সরকার এ উদ্যোগ এগিয়ে নিতে একটি কমিটি গঠন করেছে। এ কমিটি বয়স অনুসারে নাগরিকদের কয়েকটি ভাগে বিভক্ত করবে। তারপর পর্যায়ক্রমে টিকা দেওয়া হবে।

মুম্বাইসহ পুরো মহারাষ্ট্রে হু হু করে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। রাজ্য সরকারের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার এ রাজ্যে ১ দিনে ৬৬ হাজার ৩৫৮ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ১ দিনেই মারা গেছেন ৮৯৫ জন। এর আগের দিন মহারাষ্ট্রে ৫২৪ জন কোভিড–১৯ রোগীর মৃত্যু হয়েছিল। সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছিল ৪৮ হাজার ৭০০ জনের। মঙ্গলবার শুধু মুম্বাইয়ে ৪ হাজার ১৪ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। সোমবার এ সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৮৭৬।

সংক্রমণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে মুম্বাই পুলিশও। শহরটিতে এখন পর্যন্ত আট হাজারের বেশি পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ১০৬ জন। এ পরিস্থিতিতে মুম্বাই পুলিশ কমিশনার হেমন্ত নগরালে তাঁর বাহিনীর সদস্যদের একসঙ্গে দুটো মাস্ক আর ফেস শিল্ড পরার নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার রাত ১১টা পর্যন্ত ভারতে ১ দিনে নতুন করে ৩ লাখ ৬২ হাজার ৭২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ভারতে আগে কখনো এক দিনে এত করোনা রোগী শনাক্ত হননি। শুধু তা-ই নয়, বিশ্বের কোনো দেশে এখন পর্যন্ত এক দিনে এত করোনা রোগী শনাক্ত হননি। মঙ্গলবার দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১ দিনে ৩ হাজার ৩০৬ জন মারা গেছেন। এর মধ্য দিয়ে ভারতে করোনায় মোট মৃত মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ১ হাজার ১৮৬। শনাক্তের মোট সংখ্যা প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন