বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের ক্যামেল ক্লাবের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ফাহাদ বিন ফালাহ বিন হিথলিন বিশাল মূল্যের ওই উট ভাড়ার চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানের একটি ভিডিও ক্লিপ শেয়ার করেছেন। ওই ভিডিও শেয়ার করে বিন হিথলিন টুইট করেন, ‘উটের বিষয়ে আজ একটি ঐতিহাসিক দিন। ৪৮ ঘণ্টার জন্য সবচেয়ে দামি উট ভাড়ার চুক্তি সই হয়েছে। উটটির মালিক আবদুল্লাহ বিন ওদেহ ও আবদুল্লাহ আল দাবয়াস ২ কোটি সৌদি রিয়ালের বিনিময়ে চুক্তিতে সই করেন।

এই ঘটনাকে উট ব্যবহার করে অর্থনৈতিক সুবিধা অর্জনের স্মরণীয় ঘটনা হিসেবে মনে করছেন বিন হিথলিন। টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, উটের আঞ্চলিক প্রতিযোগীরাও এখন উঠে আসছেন। তাই উটের মূল্য আরও বাড়বে। তিনি আরও বলেছেন, ‘উটকে যদি আপনি সন্তানদের মতো মনে না করেন, তাহলে সেখান থেকে আপনি অর্থনৈতিক সুবিধা পাবেন না। উটের বিষয়ে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি অবশ্যই বদলাতে হবে। আমি আশা করছি, সব উট মালিক আবদুল্লাহ বিন ওদেহের উদাহরণের অনুসরণ করবেন।’

প্রসঙ্গত, উট আরবদের জীবনযাপনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। এই প্রাণীকে আরব বিশ্বের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সেরা প্রতীক হিসেবে মনে করা হয়। মরুভূমিতে চলাচলের জন্য মানুষের প্রধান বাহন হচ্ছে উট। তাই এটিকে ‘মরুভূমির জাহাজ’ বলা হয়। শুধু পরিবহন কিংবা মাংসের জন্যই নয়, বিনোদনের প্রধান মাধ্যমও মনে করা হয় উটকে।

তবে উট পালন ও এর ব্যবহার নিয়ে সৌদি আরব কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। সম্প্রতি সৌদি আরবের কর্মকর্তারা সৌদি আরবের ষষ্ঠ বাদশাহ আবদুলআজিজ ক্যামেল ফেস্টিভ্যালে ৪০ টির বেশি উটের অংশগ্রহণের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। এ নিয়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

মধ্যপ্রাচ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন