বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ এক বিবৃতিতে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সায়েদ খতিবজাদেহ বলেছেন, এই পদক্ষেপ (নিষেধাজ্ঞা) ইরানের জনগণের প্রতি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অশুভ মতলবের আরেকটি লক্ষণ।

এর আগে গত ১৩ মার্চ ইরান থেকে বেশ কিছু শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র ইরাকের ইবরিলে আঘাত হানে। ইরানের বাহিনী ওই ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে বলে স্বীকার করে। ক্ষেপণাস্ত্র হামলার দায় স্বীকার করে ইরান জানায়, তারা ইসরায়েলের একটি কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে। এ ধরনের আরও হামলার বিষয়ে সতর্কও করেছিল দেশটি। এরপরই ইরানের কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিল যুক্তরাষ্ট্র।

এ ছাড়া ইরান-সমর্থিত ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা গত শুক্রবার সৌদি আরবের একটি তেলের কারখানায় হামলা চালায়। বেশ কিছু দিন ধরেই সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে হুতিরা ক্ষেপণাস্ত্র ও রকেট হামলা চালিয়ে আসছে।

মধ্যপ্রাচ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন