এর আগে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সৌদি আরবের সশস্ত্র বাহিনীতে নারীদের যোগদানের সুযোগ করে দেয় দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। ফলে দেশটির সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী ও নৌবাহিনীসহ কয়েকটি বাহিনীতে সার্জেন্টসহ বিভিন্ন পদে যোগ দিতে পারবেন নারীরা।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের পর থেকে নারীরা সৌদি আরবের সশস্ত্র বাহিনীতে যোগদান শুরু করেন। গত সেপ্টেম্বরে দেশটির সশস্ত্র বাহিনীর ‘ওমেন্স ক্যাডার ট্রেনিং সেন্টার’ থেকে ১৪ সপ্তাহের প্রশিক্ষণ শেষে বের হয় নারী সেনাসদস্যদের প্রথম দল।

যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের উদ্যোগে ‘ভিশন ২০৩০’ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে সৌদি সমাজে সংস্কার আনার জন্য নারীদের নানা প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। এ লক্ষ্য পূরণের মাধ্যমে চরম রক্ষণশীল সৌদি সমাজে সংস্কারের পাশাপাশি জ্বালানি তেলনির্ভর অর্থনীতিতে বৈচিত্র্য আনতে চান যুবরাজ সালমান।

মধ্যপ্রাচ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন