বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার দেশটির খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের নর্থ ওয়াজিরিস্তান জেলার ইশাম এলাকায় চোরাগোপ্তা এ হামলার ঘটনা ঘটে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে পাকিস্তান সেনাবাহিনী বদ্ধ পরিকর। আমাদের সাহসী সেনাদের এমন আত্মত্যাগ এই সংকল্পকে আরও শক্তিশালী করবে।’

পাকিস্তান সামরিক বাহিনী প্রায়ই আফগান সীমান্তে হামলার শিকার হয়ে থাকে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে সর্বশেষ এই হামলার দায় কোন সশস্ত্র গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে স্বীকার করা হয়নি।

পাকিস্তান সামরিক বাহিনী গত জানুয়ারি থেকে আফগান সীমান্তসংলগ্ন এলাকায় ১২৮ সশস্ত্র যোদ্ধার নিহত হওয়ার কথা জানানোর দিনই এ হামলার ঘটনা ঘটে।

একই সঙ্গে দেশটির সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে অবশ্য আরও জানানো হয় এ একই সময়ে এমন চোরাগোপ্তা হামলায় পাকিস্তানের প্রায় ১০০ সেনা নিহত হয়েছেন।

হামলায় নিহত সেনাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়ে যাবে ইসলামাবাদ।

পাকিস্তানের নর্থ ওয়াজিরিস্তান জেলাকে একসময় দেশটিতে ‘জঙ্গিবাদের আঁতুড়ঘর’ মনে করা হতো। পাকিস্তানে আধা স্বায়ত্তশাসিত যে সাতটি আদিবাসী অঞ্চল রয়েছে তার মধ্যে একটি হলো নর্থ ওয়াজিরিস্তান। পাকিস্তানি তালেবান হিসেবে পরিচিতি টিটিপিকে উৎখাতে ২০১৪ সাল থেকে সেখানে সেনা অভিযান চলছে।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন