বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত রোববার প্যান্ডোরা পেপারস ফাঁস হয়। এতে ৭০০ জনের বেশি পাকিস্তানির নাম এসেছে। তাঁদের মধ্যে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মন্ত্রিসভার সদস্য, ঘনিষ্ঠ লোকজন, দলের প্রধান দাতা ও সামরিক কর্মকর্তারা রয়েছেন।

প্যান্ডোরা পেপারসে ইমরান খানের নাম এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। তবে তাঁর অর্থমন্ত্রী শওকত তারিন ও তাঁর পরিবারের সদস্য, সিনেটর ফয়সাল ওয়াদা, শিল্প ও উৎপাদনমন্ত্রী খোশরো বখতিয়ারের পরিবার, পিটিআই নেতা আবদুল আলিম খান, পিএমএল-কিউ নেতা চৌধুরী মনিস এলাহি, পিপিপির শারজিল মেনন প্রমুখের নাম প্যান্ডোরা পেপারসে এসেছে।

টুইটবার্তায় ইমরান খান বিষয়টি তদন্ত করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেছেন, অভিযোগ প্রমাণিত হলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পিএমএল-এনের সাধারণ সম্পাদক আহসান ইকবাল বলেন, তোশাখান মামলায় ইমরান খানের নাম আসায় তাঁর পদত্যাগ করা উচিত। প্যান্ডোরা পেপারসেও তাঁর নাম আসবে।

আহসান ইকবাল বলেন, প্যান্ডোরা পেপারস ফাঁস হওয়ার পর ইমরান খানের আর প্রধানমন্ত্রীর পদে থাকার কোনো নৈতিক যুক্তি নেই।

পিএমএল-এনের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ইমরান খান নিজেকে দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের একজন চ্যাম্পিয়ন ব্যক্তি হিসেবে গর্ব করে আসছিলেন। অথচ তিনি নিজেই তাঁর বিদেশি উপহারের তথ্য গোপন করেছেন।

পাকিস্তানে ক্রমবর্ধমান মূল্যস্ফীতির জন্য ইমরান খানকে দায়ী করেন আহসান ইকবাল। তিনি বলেন, ইমরান সরকারের বাজে নীতির কারণেই পাকিস্তানে মূল্যস্ফীতি বাড়ছে।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন