আফগানিস্তানে কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার পর ঘটনাস্থলে নিরাপত্তাবাহিনীদের অবস্থান।
আফগানিস্তানে কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার পর ঘটনাস্থলে নিরাপত্তাবাহিনীদের অবস্থান। ফাইল ছবি, এএফপি

আফগানিস্তানের কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার ‘মূল পরিকল্পনাকারী’কে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। আজ শনিবার আফগান সরকারের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এএফপিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

২ নভেম্বর কাবুলে স্থানীয় সময় বেলা ১১টার দিকে তিনজন বন্দুকধারী কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষে হামলা চালায়। এতে ২২ জন নিহত ও ২৭ জন আহত হন।

কাবুল পুলিশের এক মুখপাত্র এএফপিকে বলেন, হামলায় নিহত ব্যক্তিদের সবাই শিক্ষার্থী। তাঁদের মধ্যে ১০ জন নারী।

বিজ্ঞাপন

শুরু থেকেই এ হামলার জন্য তালেবানকে দায়ী করে আসছিল আফগান সরকার। পরে অবশ্য দায় স্বীকার করে বিবৃতি দেয় ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

আফগানিস্তানের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ তাঁর নিজের ফেসবুক পেজে এই হামলার মূলহোতা গ্রেপ্তার হওয়ার ঘোষণা দেন। সেখানে তিনি বলেন, আদিল নামের এক জঙ্গি এ হামলার পরিকল্পনা করেছিল। আদিলকে হাক্কানি নেটওয়ার্ক নিয়োগ দিয়েছিল। সরকারকে চাপে ফেলা, মানহানি করতে ও জনগণের সামনে সরকারকে দুর্বল হিসেবে তুলে ধরতে এ হামলা চালানো হয়েছিল।

ভাইস প্রেসিডেন্ট তাঁর ফেসবুক পেজে আরও লেখেন, ইসলামিক শরিয়া আইনের ছাত্র আদিল আফগানিস্তানের পানজসির অঞ্চলের বাসিন্দা। তবে তাঁর পরিবার কাবুলের উপকণ্ঠে থাকে। আদিল তিন বছর ধরে নিখোঁজ ছিলেন। কথিত আছে, তিনি যুদ্ধের প্রশিক্ষণ নিতে গিয়েছিলেন। আদিল জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, হামলার জন্য হাক্কানি নেটওয়ার্কের কাছ থেকে অস্ত্র পেয়েছিলেন।

কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার এক দিন আগে পশ্চিমাঞ্চলীয় একটি জেলায় এক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কাছে আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ২৪ জন নিহত হয়। আইএস ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0