default-image

পাকিস্তানে এক নারীসহ চার টিকটকারকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার ভোরে করাচির গার্ডেন এলাকায় আংক্লেসারিয়া হাসপাতালের কাছে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে বলে দেশটির গণমাধ্যম ডনের খবরে বলা হয়।

সিটি সিনিয়র সুপারিনটেনডেন্ট অব পুলিশ সরফরাজ নওয়াজ শেখ বলেন, নিহত চারজনই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ সক্রিয় থাকতেন, বিশেষ করে টিকটকে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনকে শনাক্ত করা গেছে। তাঁরা হলেন মুসকান ও আমির। তাঁরা বন্ধু ছিলেন।

ওই কর্মকর্তার বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, মুসকান ফোন করে গতকাল রাতে আমিরকে দেখা করতে বলেন। আমির একটি গাড়ি জোগাড় করে বান্ধবীর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় রেহান ও সাজ্জাদকে নিয়ে যান।

বিজ্ঞাপন

ওই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, চারজনই রাতে শহরে ঘুরে বেড়ান এবং সে সময় আমির ও মুসকান টিকটক ভিডিও তৈরি করেন। ভোররাত পাঁচটার দিকে আংক্লেসারিয়া হাসপাতালের কাছে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের হামলার শিকার হন তাঁরা। গাড়ির ভেতরে নারীকে গুলি করে হত্যা করা হয় আর বাকি তিনজন পুরুষকে গাড়ির বাইরে গুলি করা হয়। তাঁদের হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিন্তু এর আগেই তাঁদের মৃত্যু হয়।

গাড়ির কাছে নাইনএমএম পিস্তলের গুলির খোসা পাওয়া গেছে।

পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, রেহান ও সাজ্জাদ ইতিহাদ টাউন এলাকায় ফাঁকা গুলি ছুড়ে টিকটক ভিডিও তৈরি করেছিল। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই ভিডিও ভাইরাল হলে পুলিশ এই দুজনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে। কিন্তু এই হত্যাকাণ্ড ‘ব্যক্তিগত বিরোধের জের ধরে হতে পারে’ বলে তিনি মনে করছেন।

হত্যার কারণ ও হত্যাকারীদের খুঁজে বের করতে ঘটনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনার কোনো প্রত্যক্ষদর্শী পাওয়া যায়নি।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন