সম্প্রতি অনাস্থা ভোটে ইমরান খান ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর নওয়াজের ছোট ভাই শাহবাজ শরিফের নেতৃত্বে পাকিস্তানে নতুন সরকার গঠিত হয়।

নতুন সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ গত মঙ্গলবার বলেন, কূটনৈতিক পাসপোর্ট পাওয়া নওয়াজের অধিকার। শিগগিরই তাঁকে তা ইস্যু করা হবে।

চলতি মাসের শুরুর দিকে পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) নেতা মিয়া জাভেদ লতিফ বলেন, পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর নওয়াজ দেশে ফিরে আসবেন বলে তাঁরা আশা করছেন।

তবে পিএমএল-এনের সর্বোচ্চ নেতার দেশে ফেরা সম্পর্কে সুস্পষ্ট কোনো মন্তব্য করেননি নওয়াজের মুখপাত্র মুহাম্মদ জুবায়ের। তিনি বলেছেন, এটি একটি সংবেদনশীল বিষয়। এ বিষয়ে এখনই মন্তব্য করা যাবে না।

৭২ বছর বয়সী নওয়াজ তিনবার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট ২০১৭ সালে তাঁকে প্রধানমন্ত্রী পদে অযোগ্য ঘোষণা করেন।

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে নওয়াজ কয়েক মাস কারাভোগ করার পর ২০১৯ সালের নভেম্বরে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যান। তারপর তিনি আর দেশে ফেরেননি। তিনি দুই বছর ধরে লন্ডনে বসবাস করছেন।

ইমরান খানের সরকারের সময় নওয়াজের বিরুদ্ধে দুর্নীতির একাধিক মামলা হয়। এসব মামলাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে অভিহিত করেন নওয়াজ।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন