বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা রাজা মোয়াজ্জাম এএফপিকে বলেন, বাসে ৪০ জনের বেশি যাত্রী ছিল। এটি রাওয়ালপিন্ডি যাচ্ছিল। একটি ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক ঘোরার সময় বাসটি গভীর খাদে পড়ে যায়।

এই কর্মকর্তা চালকের বেপরোয়া গতিকে দুর্ঘটনার জন্য দায়ী করছেন। তিনি বলেন, গাড়ির ভেতর থেকে হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

বেহাল রাস্তাঘাট, লক্কড়ঝক্কড় পরিবহন ও চালকের বেপরোয়া গতির কারণে প্রায়ই দেশটিতে সড়ক ও রেল দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। গত জুনে সিন্ধু প্রদেশে উচ্চগতির যাত্রীবাহী একটি ট্রেন কয়েক মিনিট আগে লাইনচ্যুত হওয়া আরেক ট্রেনের বগির সঙ্গে সজোরে ধাক্কা খেয়ে দুমড়েমুচড়ে যায়। এতে ৬৩ জন যাত্রীর মৃত্যু হয়েছিল।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন