default-image

পাকিস্তানে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম পরিচালনাসংক্রান্ত নিয়ম জারির পরদিন কয়েকটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান পাকিস্তান ছাড়ার হুমকি দিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তাদের ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হলে পাকিস্তানে তাদের কার্যক্রম চালানো কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। পাকিস্তানের ডন অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

পাকিস্তানের ওই নিয়মটির শিরোনাম হচ্ছে ‘রিমুভাল অ্যান্ড ব্লকিং অব আনলফুল অনলাইন কনটেন্ট রুলস ২০২০’। এটি পাকিস্তানের প্রিভেনশন অব ইলেকট্রনিক ক্রাইমস অ্যাক্টের ২০১৬ (পেকা) অধীনে গঠন করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ডনকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এশিয়া ইন্টারনেট কোয়ালিশন (এআইসি) ইন্টারনেট কোম্পানিগুলোকে লক্ষ্য করে নতুন আইন তৈরির ও সরকারের স্বচ্ছতার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

বিজ্ঞাপন

এ বছরের শুরুর দিকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কনটেন্ট নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে বোর্ডভিত্তিক পরামর্শ গ্রহণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। অনলাইনে ক্ষতিকর কনটেন্ট বিষয়ে সিটিজেন প্রোটেকশন রুল ২০২০ জারির সময় বিভিন্ন সংস্থার পক্ষ থেকে সমালোচনার মুখে তিনি ওই প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু সরকার সে প্রতিশ্রুতি রাখেনি বলে দুঃখ প্রকাশ করেছে ইন্টারনেট কোয়ালিশন।

নতুন নিয়ম অনুসারে, সামাজিক যোগাযোগের কোম্পানিগুলোকে সংশ্লিষ্ট তদন্তকারী সংস্থাকে তথ্য দিতে হবে এবং সে তথ্য পাঠযোগ্য ও বোধগম্য হতে হবে। এর মধ্যে সাবসক্রাইবারদের তথ্য, পাঠক বা দর্শনার্থী তথ্য, কনটেন্ট তথ্য বা অন্য যেকোনো তথ্য রয়েছে।

সরকারি নতুন নিয়ম জারির প্রতিক্রিয়ায় এআইসি বলেছে, পাকিস্তান যদি আকর্ষণীয় প্রযুক্তি বিনিয়োগ পেতে চায় এবং ডিজিটাল রূপান্তরের লক্ষ্য অর্জন করতে চায়, তবে এ শিল্পের সঙ্গে বাস্তবে কাজের পাশাপাশি ইন্টারনেটের সুবিধাবঞ্চিত করার নিয়ম দূর করতে হবে।

মন্তব্য পড়ুন 0