default-image

পাকিস্তান এ বছরের প্রথম প্রান্তিকেই করোনাভাইরাসের সবচেয়ে কার্যকর টিকা পেতে চায়। গত ২৪ ঘণ্টায় পাকিস্তানে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৪১৭ জন।  

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্যবিষয়ক বিশেষ সহকারী চিকিৎসক ফয়সাল সুলতান স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার ডনকে বলেন, ‘এ বছরের প্রথম প্রান্তিকেই করোনার টিকা পাব বলে আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে। তবে ঠিক কবে আমরা টিকা পাব, তা বলা কঠিন।’

ফয়সাল সুলতান বলেন, কোভিড ১৯ রোগের টিকা প্রস্তুতকারী আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সরকার যোগাযোগ করছে। যারা আগে তৈরি করেছে তাদের কাছ থেকে টিকা পাওয়া যাবে।

বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র বলছে, সরকার টিকা সরবরাহ করতে চায়। তবে তাড়াহুড়ো করতে চায় না। সরকার চায় কম খরচে ভালো টিকা পেতে।

টিকা আনার ক্ষেত্রে সরকার দেরি করছে এমন সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে চিকিৎসক সুলতান বলেন, কয়েক দিনের মধ্যেই টিকা কেনার আদেশ দেওয়া হবে। তিনি বলেন, চীনের তৈরি ক্যানসিনো টিকার ট্রায়াল শেষ পর্যায়ে। ট্রায়ালের ফল ভালো হলে পাকিস্তানের ওষুধ নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের নিবন্ধন পাবে সরকার। তিনি আরও বলেন, পাকিস্তানে ২০ কোটি জনসংখ্যার মধ্যে ১০ কোটির বয়স ১৮ বছরের নিচে। এ কারণে তাঁদের টিকা দেওয়ার প্রয়োজন নেই।

পাকিস্তানের অণুজীববিজ্ঞানী অধ্যাপক জাভেদ উসমান বলেন, কাদের আগে টিকা দেবে, তা পাকিস্তানকে ঠিক করতে হবে।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন