default-image

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, ভারত সব প্রতিবেশী দেশের জন্যই হুমকি। চীন, বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের জন্য হুমকি এই ভারতে এখন উপমহাদেশের সবচেয়ে চরমপন্থী ও বর্ণবাদী সরকার রয়েছে। এটি একটি ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্র। ১৯২০ ও ১৯৩০–এর দশকে নাৎসি বাহিনীর মূলমন্ত্রে অনুপ্রাণিত তারা।
জার্মানির সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন ‘ডের স্পিগেল’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইমরান এসব কথা বলেন বলে জানিয়েছে পাকিস্তানের গণমাধ্যম ‘ডন’।

ভারতের বিষয়ে বিশেষ করে কাশ্মীর ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হস্তক্ষেপ কামনা করেন ইমরান খান। এ অঞ্চলকে হটস্পট উল্লেখ করে যেকোনো সময় সেখানে বিশৃঙ্খলা হতে পারে বলে সতর্ক করেন তিনি।

প্রতিবেশী দেশগুলোর জন্য ভারত হুমকি উল্লেখ করে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ কারণে আমরা আশা করছি বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র এ বিষয়ে নিরপেক্ষ হবে। নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট যে-ই হোন না কেন, এটাই প্রত্যাশা। যুক্তরাষ্ট্র মনে করে ভারতের জন্য চীন হুমকি, কিন্তু এটা পুরোপুরি ভুল ধারণা।’

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি ভারত সফর করেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তখন দুই দেশের মধ্যে স্যাটেলাইট ও ম্যাপের স্পর্শকাতর তথ্য আদান–প্রদানের চুক্তি সই হয়। পম্পেও বলেন, নিরাপত্তা ও স্বাধীনতার জন্য চীনের হুমকি মোকাবিলায় দুই দেশকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

এ চুক্তি হওয়ার কয়েক দিন পরেই ইমরান সাক্ষাৎকারে এসব কথা বললেন। দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে ইমরান খান মার্কিন নির্বাচন, আফগান যুদ্ধ, বাক্‌স্বাধীনতা, ইয়েমেন সংঘর্ষ, দারিদ্র্য বিমোচনে চীনের প্রশংসা, পাকিস্তান কীভাবে করোনা পরিস্থিতি সামাল দিচ্ছে, এসব নিয়ে অনেক কথা বলেন। সাক্ষাৎকারে একটি বিশেষ অংশ ছিল তাঁর স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ।

তিনি তাঁর স্ত্রী বুশরা বিবিকে আত্মার সঙ্গী বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ‘শুধু বেকুব লোক যাঁরা তাঁরাই স্ত্রীর সঙ্গে সব বিষয়ে কথা বলে না। সে (বুশরা) অনেক জ্ঞানী মানুষ। আমি তার সঙ্গে বিষয়ে আলোচনা করি।’ তিনি বলেন, ‘সে আমার আদর্শ জীবনসঙ্গী। আমি তাকে ছাড়া বাঁচতে চাই না।’

মন্তব্য পড়ুন 0