default-image

আফগানিস্তান ও ইরানের সীমান্তে বেড়া দেওয়ার কাজ শেষ করতে যাচ্ছে পাকিস্তান সরকার। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ বলেছেন, সীমান্তে বেড়া দিয়ে সরকার সুরক্ষাব্যবস্থা জোরদার করছে। বেলুচিস্তানে চার দিনের সফরকালে পাকিস্তান ও ইরান সীমান্ত পরিদর্শন শেষে এ মন্তব্য করেন তিনি। পাকিস্তানের দ্য ডনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সীমান্ত পরিদর্শনে পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন দেশটির ফ্রন্টায়ার করপোরেশনের মহাপরিদর্শক মেজর জেনারেল বিলাল সফদার ও তুরবাত অঞ্চলের ডেপুটি কমিশনার ইলিয়াস বাদিনি। ওই কর্মকর্তারা মন্ত্রীকে বলেন, ইরান সীমান্তে পাকিস্তানের বেড়া নির্মাণের ৪০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। মোট ৯২৮ কিলোমিটার সীমান্তের এই বেড়া নির্মাণকাজ চলতি বছরের জুন মাস নাগাদ সম্পন্ন হয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে, আফগান সীমান্তে দেশটির বেড়া দেওয়ার কাজ ৯০ শতাংশ শেষ হয়েছে। বাকি ১০ শতাংশ কাজ আগামী চার মাসের মধ্যে সম্পন্ন করে ফেলবে পাকিস্তান।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ বলেন, ‘বর্তমানে ইরানের সঙ্গে আন্তরিক সম্পর্ক রয়েছে পাকিস্তানের। এখন তারা ইরানের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে গুরুত্ব দিচ্ছে। সময়ের ব্যবধানে এই সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে।’

সীমান্ত নিয়ে শেখ রশিদ আহমেদ বলেন, ‘আধুনিক সীমান্তব্যবস্থা–পদ্ধতি উন্নয়ন করছে পাকিস্তান, যাতে ইরান ও আফগানিস্তানের সঙ্গে সর্বোচ্চ বৈধ পারাপার ও বাণিজ্য সুবিধা পাওয়া যায়।এ ছাড়া পাকিস্তান সরকার অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। এতে পাকিস্তানের শত্রুরা তাদের লক্ষ্য পূরণে সফল হবে না।’

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘যেসব সন্ত্রাসী বেলুচিস্তানকে অস্থিতিশীল করতে চাইবে, তারা লুকানোর জায়গা পাবে না।’

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন