গিল বলেন, ‘হামলাকারীদের আমি বলতে চাই, সর্বশক্তিমান আল্লাহ এবং আমার জনগণের দোয়ায় আমি বেঁচে আছি। আমার গাড়ি ধাওয়া করা হয়েছিল এবং ইচ্ছাকৃতভাবে ধাক্কা দেওয়া হয়েছিল। একটা পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এটা করা হয়েছিল।’

আগের দিন টুইটারে দেওয়া পোস্টের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে গিল বলেন, ‘আমি ঠিক এক দিন আগে বলেছিলাম, সর্বোচ্চ তোমরা যেটা করতে পারো, আমাদের হত্যা করতে পারো। তোমরা সেটা করো। কিন্তু আমি আমার লক্ষ্য থেকে বিচ্যুত হব না।’

পিটিআই নেতা গিলের এ ঘটনা তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। নিরপেক্ষ তদন্তের বিষয়টি নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, গিল ও তাঁর সহযোগীদের আহত হওয়ার ঘটনায় সমবেদনা ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁদের সর্বোচ্চ চিকিৎসাসেবা দিতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

এদিকে গিলের গাড়িকে ধাক্কা দেওয়া গাড়ি ও মালিককে শনাক্ত করেছে পুলিশ। গাড়ির মালিক ও চালককে আটক করা হয়েছে। গাড়ির মালিক পাঞ্জাবের মুরিদকে অঞ্চলের নাজির।

পুলিশকে নাজির বলেন, ওজাহাত আলি নামে একজনকে তিনি গাড়িটি ভাড়ায় চালাতে দেন। তিনি পরিবার নিয়ে ইসলামাবাদ যাওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জিজ্ঞাসাবাদে ওজাহাত আলি পুলিশকে জানান, দুর্ঘটনার পর তিনি ঘটনাস্থলে গাড়ি থামিয়েছিলেন। কিন্তু পরে গিলকে গাড়ি থেকে বের হতে দেখে সেখান থেকে সটকে পড়েন।

জাতীয় পরিষদে বিরোধী জোটের আনা অনাস্থা প্রস্তাবে হেরে ৯ এপ্রিল বিদায় নেয় ইমরান খানের সরকার। অনাস্থা প্রস্তাবের নেপথ্যে বিদেশি ষড়যন্ত্র ছিল বলে দাবি করে আসছে পিটিআই।

পাকিস্তান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন