বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যে চারজনকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে, তাঁদের মধ্যে দুজন কিস নৈশ ক্লাবের মালিক। আর দুজন গুরিজাদা ফান্ডাগুয়েরিয়া নামে ওই ব্যান্ড দলের সদস্য। তাঁদের হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। নৈশ ক্লাবে নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে বেশির ভাগই ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

ব্রাজিলের নিও গ্রান্ডে দ্য সাল রাজ্যের রাজধানী পোর্তো আলেগ্রেতে বিচারক অরল্যান্ডো ফ্রাসিনি এ রায় ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, আসামিদের দোষ অনেক বেশি। এত বেশি প্রাণহানির জন্য তাঁদের দায় রয়েছে।

নৈশ ক্লাবের দুই মালিক এলিসান্দ্রো কালেগারো স্পোরের (৩৮) সাড়ে ২২ ও মারো লন্দ্রেরো হফম্যানের (৫৬) সাড়ে ১৯ বছর কারাদণ্ড হয়েছে।

আর লুসিয়ানো বনিলহা লিয়াও (৪৪) ও মার্সেলা দ্য জেসাস ডস সান্তোসের (৪১) ১৮ বছর করে কারাদণ্ড হয়েছে।

তদন্তের পরে পুলিশ জানায়, গানের দলের জ্বালিয়ে রাখা আগুন থেকেই ক্লাবে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তাঁদের মধ্যে অনেকে পুড়ে মারা যান। আগুন থেকে সৃষ্ট ধোঁয়ায় দম বন্ধ হয়েও মারা যান অনেকে।

তদন্তে আরও জানা যায়, নৈশ ক্লাবে অগ্নিনির্বাপণব্যবস্থা কার্যকর ছিল না। ক্লাবে থেকে বেরোনোর জন্য মাত্র দুটি দরজা ছিল। জরুরি নির্গমনব্যবস্থাও ভালো ছিল না।

লাতিন আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন