default-image

ব্রাজিলে চীনা টিকার পরীক্ষা ফের শুরুর অনুমোদন দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা আনভিসা। বুধবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।
আনভিসা তাদের ঘোষণায় বলেছে, ব্রাজিলে চীনা টিকার পরীক্ষা আবার শুরু হতে পারে।

নতুন সিদ্ধান্তের আগে গত সোমবার আনভিসা ব্রাজিলে চীনা টিকার পরীক্ষা স্থগিত করার কথা জানিয়েছিল। সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে তারা একজন টিকা গ্রহণকারীর শরীরে ‘মারাত্মক বিরূপ প্রতিক্রিয়া’ দেখা দেওয়ার কথা উল্লেখ করেছিল।

পরে একজন স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যুর খবর জানা যায়। তবে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রধান এখন বলছেন, টিকা পরীক্ষার সঙ্গে ওই মৃত্যুর ঘটনার কোনো যোগসূত্র নেই।

বুধবার এক বিবৃতিতে আনভিসা বলেছে, টিকার পরীক্ষা ফের শুরুর বিষয়টি অনুমোদন দেওয়ার জন্য তাদের কাছে পর্যাপ্ত তথ্য এসেছে।

আনভিসার বিবৃতিতে বলা হয়, পরীক্ষা স্থগিত হওয়া মানে এই নয় যে তদন্তাধীন টিকাটি মানহীন, অনিরাপদ বা অকার্যকর।

বিজ্ঞাপন

অবশ্য ব্রাজিলে চীনা টিকার পরীক্ষা স্থগিত হওয়ার ঘটনাটিকে একটি ‘বিজয়’ হিসেবে অভিহিত করেছিলেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো।

জইর বলসোনারো চীনা টিকার একজন ঘোর সমালোচক। তিনি এ-ও বলেছিলেন যে ব্রাজিলের জন্য এই টিকা কিনবেন না।

এখন ব্রাজিলে চীনা টিকা পরীক্ষা আবার শুরুর অনুমোদন দেওয়ার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি জইর বলসোনারো।

করোনাভ্যাক নামের পরীক্ষামূলক টিকাটি তৈরি করেছে চীনা ওষুধ কোম্পানি সিনোভ্যাক। এখন টিকাটির তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা চলছে। এ ছাড়া ফাইজার ও অক্সফোর্ডের টিকাও তৃতীয় ধাপের পরীক্ষায় আছে।

সিনোভ্যাকের দাবি, তাদের টিকা যে নিরাপদ, সে ব্যাপারে তারা আত্মবিশ্বাসী।

বিশ্বে করোনায় অন্যতম ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ব্রাজিল। দেশটিতে ৫৭ লাখের বেশি মানুষ করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। মারা গেছেন ১ লাখ ৬৩ হাজারের বেশি মানুষ।

মন্তব্য পড়ুন 0