ভেনেজুয়েলা অন্ধকারেই, বিদ্যুৎমন্ত্রী বদল

বিজ্ঞাপন
default-image

ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরো দেশকে অচল করে দেওয়া ব্ল্যাকআউট (বিদ্যুৎ বিপর্যয়) সমস্যার সমাধানে বিদ্যুৎমন্ত্রী বদল করেছেন। গতকাল সোমবার মাদুরো এই সিদ্ধান্ত নেন। বিরোধী নেতা হুয়ান গুয়াইদো কারাকাসের বিভিন্ন সড়কে বিক্ষোভ চালিয়ে যেতে তাঁর সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানান।

জাতীয় টেলিভিশনে সম্প্রচার করা এক ভাষণে বিদ্যুৎমন্ত্রী হিসেবে ইগর গাভিদিয়াকে মনোনীত করেন মাদুরো। ৬৫ বছর বয়সী তড়িৎ প্রকৌশলী ইগর এর আগে জাতীয় পাওয়ার জেনারেটর ইলেকট্রিফিকেশন দেল ক্যারোনির সভাপতি ছিলেন। বিদ্যুৎমন্ত্রী লুই মত্তার স্থলাভিষিক্ত করা হয় তাঁকে।

মাদুরো আগামী ৩০ দিনের জন্য ‘বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ব্যবস্থা’ ঘোষণা করার পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। গত সপ্তাহে মাদুরো এই পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করলে ভেনেজুয়েলাবাসী একে বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের একটি পথ হিসেবেই দেখেছে। মাদুরো বলেন, ‘নতুন দায়িত্ব নিয়ে শক্তি বাড়িয়ে ধাপে ধাপে এই পরিকল্পনার উন্নতি ঘটাতে কিছু পরিবর্তন প্রয়োজন ছিল।’

তেলসমৃদ্ধ ভেনেজুয়েলাকে প্রথমবারের মতো দুর্বল করে ফেলে গত ৭ মার্চের ব্ল্যাকআউট। প্রায় সপ্তাহব্যাপী দেশটির বেশ কিছু অংশজুড়ে চলতে থাকে এই সংকট। থেমে থেমে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হলেও গত ২৫ মার্চে ঘটে আরেক ব্ল্যাকআউট। এর সঙ্গে যুক্ত হওয়া পানিসংকট দেশবাসীকে চরম দুর্ভোগের মুখে ফেলে দেয়। উচ্চ মুদ্রাস্ফীতির শিখরে থাকা ভেনেজুয়েলার অর্থনীতি দেশটিতে খাদ্য ও ওষুধের যথাযথ জোগানও দিতে পারছে না।

বিক্ষুব্ধ জনতা গত রবি ও গতকাল সোমবার কারাকাসের বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে। ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে রাস্তা আটকে পানি সরবরাহের দাবি জানায় তারা। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাতে জানা যায়, রোববার রাতে বিক্ষোভকারীরা প্রতিবন্ধকতায় আগুন ধরিয়ে দিলে পুলিশ তাদের ওপর গুলি ছোড়ে। মাদুরোর সরকারকে অবৈধ দাবি করে ভেনেজুয়েলার স্বঘোষিত অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট গুয়াইদো বলেন, ‘এই সরকারের কাছে বিদ্যুৎ বা পানি সংকটের কোনো সমাধান নেই, তা পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে।’

দেশটির ক্যাথলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে দিনের শুরুতে এক সমাবেশে গুয়াইদো বলেন, ‘যতবার বিদ্যুৎ চলে গেছে, পানি ছিল না, গ্যাস ছিল না—কীভাবে দিন কেটেছে আমাদের, বলুন তো? আমরা প্রতিবাদ করব। দাবি জানাব। ভেনেজুয়েলার রাস্তাগুলো আমরা দখল করে নেব। কারণ, এটি আমাদের অধিকার।’ গুয়াইদো পশ্চিমা এবং দক্ষিণ আমেরিকার বেশ কিছু দেশের মদদপুষ্ট।

সপ্তাহান্তে বিদ্যুৎ–বিভ্রাটের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ভেনেজুয়েলার প্রধান তেল রপ্তানি টার্মিনাল। দেশটির অর্থনীতির প্রধান চালিকা শক্তি অপরিশোধিত তেল রপ্তানিও পঙ্গু হয়ে পড়েছে। বন্দরটি একই মাসে তৃতীয়বারের মতো বিদ্যুৎ সংকটে ধুঁকছে। ব্ল্যাকআউটের পরে গত শুক্রবার নতুন আবেদন জমা নেওয়া শুরু করেছে বন্দরটি। বিদ্যুতের অভাবে বন্ধ ছিল সব কর্মকাণ্ড।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন