দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা গত এপ্রিলে জোহানেসবার্গের একটি কোভিড-১৯ হাসপাতালে পরিদর্শন করেন।
দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা গত এপ্রিলে জোহানেসবার্গের একটি কোভিড-১৯ হাসপাতালে পরিদর্শন করেন। রয়টার্স ফাইল ছবি

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট বলেছেন, তাঁর দেশে করোনার সংক্রমণ ইতিমধ্যে শীর্ষে পৌঁছেছে। আর তাই তিনি লকডাউন শিথিলের ঘোষণা দিয়েছে। খবর বিবিসি অনলাইনের।

প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা বলেন, কাল সোমবার থেকে ধীরে ধীরে অর্থনীতির ক্ষেত্রে সব ধরনের বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হতে পারে। মদ ও তামাক বিক্রির বিতর্কিত সিদ্ধান্তও তুলে নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

গত শনিবার একটি টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে সিরিল রামাফোসা বলেন, এভাবে লকডাউন শিথিল করার ফলে দেশের ঝিমিয়ে পড়া অর্থনীতি আবার চাঙা হয়ে উঠবে। তবে লকডাউন শিথিল করলেও দেশবাসী যাতে কোভিড-১৯ ঠেকাতে তাদের সুরক্ষা ব্যবস্থা শিথিল না করে ফেলে, সেদিকেও দৃষ্টি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট।

দক্ষিণ আফ্রিকায় এ পর্যন্ত কোভিড-১৯–এ সংক্রমণ হয়েছে ৫ লাখ ৭০ হাজার মানুষ। মারা গেছে সাড়ে ১১ হাজার। পুরো আফ্রিকার অর্ধেকেরও বেশি সংক্রমণ হয়েছে এ দেশে। সংক্রমণের নিরিখে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, রাশিয়া ও ভারতের পর পঞ্চম স্থানে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

বিজ্ঞাপন

প্রেসিডেন্ট বলেন, গত সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে সংক্রমণের হার ১২ হাজার থেকে কমে ৫ হাজারে পৌঁছেছে। সুস্থতার হার এখন ৮০ শতাংশ।

গত মার্চ মাস থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় কঠোর লকডাউন শুরু হয়। দেশের সমস্ত সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়। স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়। বন্ধ হয় মদ বিক্রিও। দেশের জনগণকে বাড়িতে থাকতে বলা হয়।

মন্তব্য পড়ুন 0