বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। এতে দেখা যায়, গুলি শুরুর পর প্রধানমন্ত্রী অ্যারিয়েল হেনরি ও তাঁর নিরাপত্তা দল গাড়ির দিকে ছুটছেন।
স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ওই দুর্বৃত্তদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর গোলাগুলিতে একজন নিহত ও দুজন আহত হয়েছেন।

গত ৭ জুলাই রাতে হাইতির রাজধানী পোর্ট অব প্রিন্সে নিজ বাসভবনে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন দেশটির প্রেসিডেন্ট জোভেনেল মইসি। ওই হত্যাকাণ্ডের পরে তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রী ক্লঁদে জোসেফের সঙ্গে ক্ষমতা নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। এরপর প্রধানমন্ত্রী পদে বসেন অ্যারিয়েল হেনরি। তিনি ক্ষমতায় আসার পর দেশটির অপহরণকারী চক্রগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন। মূলত, এই অপহরণকারীরা দেশজুড়ে গ্যাস সরবরাহ ব্যবস্থার ওপর নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। এর কারণে জ্বালানিসংকটও দেখা দিয়েছে দেশটিতে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর ওপর হামলাকারীকে ‘দস্যু ও সন্ত্রাসী’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে তাঁর কার্যালয়। শনিবারের ওই ঘটনার পর হামলাকারীকে ধরতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

লাতিন আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন